দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর অচল

টানা তৃতীয় দিনের মতো দমকা থেকে ঝড়ো হাওয়াসহ অতিবর্ষণে সৃষ্ট দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরে আমদানি-রফতানি পণ্য খালাস ও ওঠানামা বন্ধ রয়েছে। এতে শনিবার সকাল থেকেই বন্দর অচল হয়ে পড়েছে।

বন্দরের বহির্নোঙ্গরে অবস্থানরত মাদার ভেসেল থেকে আমদানি পণ্য লাইটারিং কাজ বন্ধ রয়েছে। তাছাড়া বহির্নোঙ্গর থেকে আমদানিপণ্য বোঝাই ৬টি জাহাজ জেটিতে এসে ভিড়ার সিডিউল থাকলেও সমুদ্র উত্তাল থাকায় কোন জাহাজ আসেনি। তবে কন্টেইনার ফিডার জাহাজের পণ্য হ্যান্ডলিং কাজ চলছে।

বন্দর কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, ঝড়ো হাওয়ার কারণে জাহাজ চলাচলে সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে। বন্দরের জেনারেল কার্গো বার্থের ৬টি জেটিতেও অপারেশনাল কাজ বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে বিশেষ করে রমজান মাসের জন্য প্রয়োজনীয় খাদ্যপণ্য আমদানি ও খালাস ছাড়া অন্যসব মালামাল উঠানামা বন্ধ রয়েছে।

আবহাওয়া দফতর জানায়, মৌসুমি লঘুচাপের প্রভাবে গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার কারণে উত্তর বঙ্গোপসাগর উত্তাল রয়েছে। সাগর উপকূল, সমুদ্র বন্দরসমূহ ঝড়ো হাওয়ার সম্মুখীন হতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে ৩নং স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখানো হচ্ছে। সকল মাছ ধরা ট্রলার নৌযানকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচলের জন্য বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং তৎসংলগ্ন বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে বর্তমানে একটি  লঘুচাপ অবস্থান করছে, যা ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের পশ্চিমাংশ পর্যন্ত বিস্তৃৃত রয়েছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের ওপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে প্রবল অবস্থায় রয়েছে।

আবহাওয়া পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা থেকে ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরণের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

You Might Also Like