আশরাফুল ৮ বছরের জন্য নিষিদ্ধ : জরিমানা ১০ লাখ

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ফিক্সিংয়ের দায়ে মোহাম্মদ আশরাফুলকে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে আট বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে। একইসঙ্গে তাকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

আশরাফুলের বিরুদ্ধে চারটি অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বুধবার বিকেলে এ সংক্রান্ত গঠিত বিশেষ ট্রাইব্যুনাল তাকে এ শাস্তি দেন।

এছাড়া ঢাকা গ্লাডিয়েটর্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও মালিক শিহাব চৌধুরীকে ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট সব ধরনের কর্মকাণ্ড থেকে ১০ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাকে ২০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

একইসঙ্গে ঢাকা গ্লাডিয়েটর্সের খেলোয়ার নিউজিল্যান্ডের লু ভিনসেন্টকে তিন বছরের জন্য এবং শ্রীলঙ্কার কৌশল লুকুয়ারাচ্চিকে ১৮ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

তবে আগামী ২১ দিনের মধ্যে এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবেন সাজাপ্রাপ্তরা।

এর আগে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি বিপিএল ম্যাচ ফিক্সিংয়ের আংশিক রায় দেয় ট্রাইব্যুনাল। রায়ে কারা দোষী আর কারা নির্দোষ তা বলা হয়েছিল। আংশিক রায়ের সপ্তাহ তিনেকের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ রায় দেওয়ার কথা থাকলেও তিন মাস পর পূর্ণাঙ্গ রায় দেয় ট্রাইব্যুনাল। রায়ে জানানো হয়, কেন তারা দোষী বা নির্দোষ। রায়ে দোষী প্রামাণিত হন মোহাম্মদ আশরাফুলসহ চারজন। অব্যাহতি পান অভিযুক্ত দশজনের ছয়জন।

যাদেরকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে তারা হলেন- মোশাররফ হোসেন রুবেল, মাহবুবুল আলম রবিন, মোহাম্মদ রফিক, সেলিম চৌধুরী, গৌরব রাওয়াত ও ইংল্যান্ডের ক্রিকেটার ইংল্যান্ডের ক্রিকেটার ড্যারেন স্টিভেন্স।

বিপিএল’এ ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ উঠলে গত বছরের ১৪ অক্টোবর আইন কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্টের সাবেক বিচারপতি আব্দুর রশিদকে ডিসিপ্লিনারি প্যানেলের চেয়ারম্যান নিয়োগ করে বিসিবি। তিনি বিধি অনুযায়ী ডিসিপ্লিনারি প্যানেলের ১০ সদস্য নিয়োগ করেন।

পরে ১০ নভেম্বর প্যানেলের চেয়ারম্যান সাবেক বিচারপতি খাদেমুল ইসলাম চৌধুরীকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের দুর্নীতি বিরোধী ট্রাইব্যুনাল গঠন করেন। অপর দুই সদস্য হলেন- আজমামুল হোসেন কিউসি ও সাবেক ক্রিকেটার শাকিল কাসেম।

You Might Also Like