খুব শিঘ্রই প্রকাশিত হচ্ছে আরপি আহমেদ এর দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ’আগুনমুখী!’

বাংলায় ইন্টারনেট মিডিয়ার পথিকৃতদের মধ্যে অন্যতম অরপি আহমেদ এর দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ’আগুনমুখী!’ খুব শিঘ্রই বাজারে আসছে। দেশের শীর্ষ স্থানীয় প্রকাশনা সংস্থা ’অনন্যা’ কাব্যগ্রন্থটি প্রকাশনার দায়িত্ব নিয়েছেন। অরপি আহমেদ এর কাব্যগ্রন্থ ’আগুনমুখী!’র প্রচ্ছদ এঁকেছেন দেশবরন্য শিল্পী ধ্রুব এষ।
২০১০ সালে অরপি আহমেদ এর প্রথম কাব্যগ্রন্থ ’তোমার লাল টুকটুক” প্রকাশিত হয়েছিল। বাংলাপ্রকাশ থেকে প্রকাশিত অরপি আহমেদ এর প্রথম কাব্যগ্রন্থ ’তোমার লাল টুকটুক” এর প্রচ্ছদও একেঁছিলেন শিল্পী ধ্রুব এষ। ’তোমার লাল টুকটুক” কাব্যগ্রন্থটির সম্পাদনার দায়িত্বে ছিলেন শিশু সাহিত্যিক হুমায়ুন কবির ঢালী।

উল্লেখ্য, কাব্যগ্রন্থ ”আগুনমুখী!’ অরপি আহমেদ এর অষ্টম প্রকাশনা। ২০০৯ সালে একুশের বইমেলায় মুক্তিযুদ্ধের উপর ভিত্তি করে লেখা প্রথম উপন্যাস “বাবার হাতের প্রথম ছোঁয়া” প্রকাশিত হয়েছিল। ২০১০ সালে কাব্যগ্রন্থ “তোমার লাল টুকটুক”, ২০১১ সালে রম্য উপন্যাস “দরবারে হাওয়া”, ২০১২ সালে সম্পূর্ণ প্রেমের উপন্যাস “আলোমায়া”, ২০১৩ সালে একুশের বই মেলায় প্রেমের উপন্যাস ”লাকি মাই লাভ” প্রকাশিত হয়।

২০১৪ সালের বইমেলায় প্রকাশিত হয় অরপি আহমেদ এর মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক দ্বিতীয় উপন্যাস ”একাত্তরের যোদ্ধা : অপারেশন পিএনএস লাকসাম”। এছাড়াও ২০১৪ অরপি আহমেদের প্রথম ফেইথ স্পিরিচ্যুয়াল সাইফাই ফ্যান্টাসি থ্রীলার ”হিরো” প্রকাশিত হয়।

বাংলায় ইন্টারনেট মিডিয়ার পথিকৃতদের মধ্যে অন্যতম অরপি আহমেদ সাবেক প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য, জাতীয় সংসদের প্রাক্তন সদস্য গেরিলা ট্রেনিংপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আলহাজ¦ মৌলভী জালাল আহমেদের সন্তান। বাংলাদেশের সংবিধানকে দেশের সর্বোচ্চ আইনে পরিনত করতে যে কয়জন এমপি সাংবিধানের প্রস্তাবনায় স্বাক্ষর করেন অরপি আহমেদ এর পিতা মরহুম জালাল আহমেদ তাদের মধ্যে অন্যতম।

অরপি আহমেদ ১৯৮৪ সালে লাকসাম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ১৯৮৬ সালে লাকসাম নওয়াব ফয়জুন্নেসা সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি এবং ১৯৯৪ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতায় ম্যানেজম্যান্টে মাষ্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন। ২০০১ সালে অরপি আহমেদ যুক্তরাষ্ট্রের মিনিসোটা রাজ্যের সেন্ট থমাস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং এ মাষ্টার্স অব সফটওয়ার সিষ্টেম (এমএসএস) ডিগ্রী অর্জন করেন।

১৯৮৮ সাল থেকে অরপি আহমেদ সাংবাদিকতায়ও জড়িত হয়ে পড়েন। দেশে ও প্রবাসের বিভিন্ন পত্রিকায় তার লেখা সংবাদ অত্যন্ত গুরুতে¦র সাথে প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়াও তিনি নিয়মিত কলাম লিখে থাকেন। প্রবাসে সাংবাদিকতা সাহিত্য চর্চা কমিউনিটি সেবা এবং কর্মক্ষেত্রে বিশেষ আবদানের জন্য অরপি আহমেদ ক্লোজআপ ওয়ান এওয়ার্ড, ফোবানা এওয়ার্ড, গুড সিটিজেন অ্যাওয়ার্ড  সহ নানা অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন।

২০০০ সালের মাঝামাঝি সময়ে নিউইয়র্কের ব্রুকলিন পলিটেকনিকাল ইনিষ্টিটিউটে সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং এ মাষ্টার্স কোর্স করার সময়ে অরপি আহমেদ সর্বপ্রথম বাংলা বিজ্ঞাপন ডট কম নামে একটি ডোমেইন এ বিজয় ফন্ট ব্যবহার করে সর্বপ্রথম বাংলা ভাষায় বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য বাংলা ইন্টারনেট মিডিয়া নিয়ে কাজ শুরু করেন। এই সময়ে তিনি নিউ্ইয়র্ক থেকে প্রকাশিত জনপ্রিয় সাপ্তাহিক পত্রিকা ’ঠিকানা’র ব্রুকলিন প্রতিনিধি হিসাবেও কাজে নিয়োজিত ছিলেন।

প্রায় তিন বছর বাংলা বিজ্ঞাপন ডট কম নিয়ে কজ করার পর ২০০৩ সালের শুরুর দিকে বাংলা বিজ্ঞাপন ডোমেইন ছেড়ে দিয়ে তিনি নেটমলা ডট কম, বিডি মেলা ডট কম নিয়ে কাজ শুরু করেন। একই সময়ে তিনি দেশের সর্বপ্রথম উপজেলা ভিত্তিক ওয়েব সাইট জিলানা ডট অর্গ নিয়ে কাজ শুরু করেন এবং পরে জিলানা ডট অর্গ ডোমেইন ছেড়ে দিয়ে ২০০৪ সালের প্রথম দিকে লাকসাম ডট কম নিয়ে কাজ শুরু করেন। ২০০৪ সালের প্রথম দিকে অরপি আহমেদ সম্পূর্ণ বাংলায় সংবাদ ভিত্তিক নিউজপোর্টাল খবর ডট কম নিয়েও কাজ শুরু করেন।

অরপি আহমেদ এর সমসাময়ীক সময়ে ইমেলা ডট কম এবং প্রিয় ডট কম নামে দুটি নামে দুটি ওয়েব সাইট নিয়ে জাকারিয়া স্বপন কাজ শুরু করলেও বর্তমানে প্রিয় ডট কম সাইটি এখনও বহুল ভাবে প্রচারিত হচ্ছে। এছাড়া নিউইয়র্ক প্রবাসী সাংবাদিক আবিদ রেজাও ২০০৪ সালের প্রথম দিকে এনওয়াই বাংলা ডট কম নামে একটি ওয়েবসাইট নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশনা শুরু করেন। কিন্তু বর্তমানে সাইটটির প্রকাশনা স্থগিত রয়েছে।

বাংলায় ইন্টারনেট মিডিয়ার পথিকৃতদের অন্যতম অরপি আহমেদ বর্তমানে খবর ডট কম, নিউইয়র্ক বাংলা ডট কম, ওয়াশিংটন বাংলা ডট কম, জর্জিয়া বাংলা ডট কম, আওয়ামী লীগ টাইমস ডট কম, লাকসাম ডট কম এর প্রধান সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও অরপি আহমেদ বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে আইটি ইঞ্জিনিয়ার হিসাবে কর্মরত আছেন।

’হিরো!’ সিরিজের তৃতীয় উপন্যাস সম্পূর্ণ ফেইথ স্পিরিচ্যুয়াল সাইফাই ফ্যান্টাসি থ্রীলার নিয়ে ইতিমধ্যেই অরপি আহমেদ এর নবম উপন্যাস লেখার কাজ শেষ হয়েছে। ইতিমধ্যেই তিনি তার দশম প্রকাশনার কাজে হাত দিয়েছেন এবং খুব শিঘ্রই তার একাদশ প্রকাশনার কাজে হাত দিবেন বলে এই প্রতিবেদককে জানান।

You Might Also Like