জ্যামাইকায় ৩ দিনব্যাপী মাল্টি কালচারাল মেলা অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশী আমেরিকান কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট এন্ড ইয়্যুথ সার্ভিস (বাকডাইাস)-এর আয়োজনে জ্যামাইকায় অনুষ্ঠিত হলো তিন দিনব্যাপী জমজমাট ‘মাল্টি কালচারাল মেলা’। গত ২৩ থেকে ২৫  মে রোজ শুক্র থেকে রবিবার পর্যন্ত অনুষ্ঠিত এই মেলায় বাংলাদেশের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যসহ পাশাপাশি মাল্টি কালচার তুলে ধরা হয়। ‘জ্যামাইকা ফার্স্ট পার্কিং লটে’ প্রতিদিন বেলা ১২টা থেকে শুরু হয়ে মেলা রাত ১১টা পর্যন্ত চলার কথা থাকলেও মেলার প্রথম দু’দিন প্রতিকুল আবহাওয়া থাকায় মেলার কার্যক্রম ব্যাহত হয়। তবে মেলার শেষ দিন অর্থাৎ গত ২৫ মে রোববার ছিলো উপচে পড়া মানুষের ঢল। মেলার মূল উদ্বোধনী পর্বে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। অনুষ্ঠানে ব্লাক ইন্সটিটিউশনের প্রেসিডেন্ট বার্থা লুইস, সাবেক এমপি ও সাপ্তাহিক ঠিকানা’র সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এম এম শাহীন প্রমুখ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন। মেলায় অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন সাপ্তাহিক বাংলাদেশ সম্পাদক ডা. ওয়াজেদ এ খান, জারা রিয়েলটির কর্ণধার যথাক্রমে জর্জ শূভরাজ, কেন্ট শুভরাজ ও জে শুভরাজ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, জেবিবিএ’র সাবেক সভাপতি সৈয়দ রহমান মান্নান, এটর্নী মঈন এ চৌধুরী, এডভোকেট এন মজুমদার, নিউইয়র্ক সিটি কম্পট্রোলারের প্রতিনিধি ডেব ওয়াস্কি, ডেমোক্রেটিক দলীয় ডিষ্ট্রিক্ট লীডার উষা সেন গুপ্ত, ভারতীয় বিজনেস এসোসিয়েশনের সভাপতি মানু কাপুর, এটর্নী পেরী ডি সিলভার, ওয়েলকেয়ারের সিনিয়র ম্যানেজার ও বাপাফ সভাপতি সালেহ আহমেদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মধ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা শরাফ সরকার ও মনির হোসেন, প্রবীণ প্রবাসী ছদরুন নূর, বাংলাদেশ স্পোর্টস কাউন্সিল অব আমেরিকার সভাপতি মহিউদ্দিন দেওয়ান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী রেজাউল করীম চৌধুরী, আব্দুল কাদির সিদ্দিকী, জ্যামাইকা বাংলাদেশ ফ্রেন্ডস সোসাইটির সভাপতি বিলাল চৌধুরী, মার্লি স্মিথ, বিষ্ণু মহাদেব, ড্রার্মা ডিয়াজ, জেসি প্রসাদ প্রমুখসহ মূলধারার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গসহ দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেন। বাকডাইস’র সভাপতি মিসবাহ আবদীন ও কো-অর্ডিনেটর মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার মেলায় আগত অতিথি ও বিশিষ্ট ব্যক্তিদের পরিচয় করিয়ে দেন। মেলার অনুষ্ঠানমালা উপস্থাপন করেন আশরাফুল হাসান বুলবুল ও শারমিন রেজা ইভা।

অনুষ্ঠানে সিটি কম্পট্রোলারের পক্ষ থেকে মেলা আয়োজকদের প্রক্লেমোশন প্রদান করা হয়। এছাড়া বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মাঝে ক্রেস্ট বিতরণ করা হয়।
ঢাক-ঢোলের বাদ্য-বাজনাসহ মেলায় ছিলো হরেক রকমের স্টল, শিশু-কিশোর-কিশোরীদের জন্য বিভিন্ন রাইড, মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, র‌্যাফল ড্র প্রভৃতি। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দেশ ও প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করেন। উল্লেখ্যযোগ্য শিল্পীদের মধ্যে ছিলেন নগর বাউল খ্যাত জেমস, ফকির শাহাবুদ্দিন, কোনাল, সজল, প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পী শাহ মাহবুব, চম্পা রায়, সুস্মিতা সুমাইয়া, অনু, রিদওয়ানা, মোহনা, শ্রাবন্তী, তাসলিম, নূরুজ্জামান লাল্টু এবং সুর ও ছন্দ শিল্পী গোষ্ঠী। এছাড়াও মঞ্চস্থ হয় ঐতিহাসিক নাটক ‘নবাব সিরাজউদ্দৌলা’র অংশ বিশেষ। মেলার প্রথম দিনকে ‘আমেরিকান এন্ড আফ্রিকান নাইট’, দ্বিতীয় দিন ‘ক্যারাবিয়ান নাইট’, আর শেষ দিন ‘বাংলাদেশ নাইট’ হিসেবে  ঘোষণা করা হয়।

উল্লেখ্য, গত বছর বাকডাইস’র আয়োজনে ওজনপার্কে ৫দিন ব্যাপী মেলার আয়োজন করা হয়। বাঙালী ও অন্যান্য কমিউনিটির অনুরোধে এবছর জ্যামাইকায় ৩দিন ব্যাপী মেলা অনুষ্ঠিত হয়। মেলা কমিটির কো-অর্ডিনেটর দায়িত্ব পালন করেন মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার।

You Might Also Like