বুড়িগঙ্গা দূষণ ঠেকাতে শোধনাগার নির্মাণ করা হবে

বর্তমান বুড়িগঙ্গা নদীর দূষণ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, রাজধানীর সব বর্জ্য এসে পড়ছে বুড়িগঙ্গায়। বর্জ্য পয়ঃনিষ্কাশন লাইন বন্ধ করলেও রাজধানী দূষিত হয়ে পড়বে। এজন্য নদীর তীরে একটি ওয়াল তৈরি করে তা কেন্দ্রীয় শোধনাগারে (এনভায়রনমেন্ট ট্রিটমেন্ট প্লান্ট-ইটিপি) শোধন করে নদীতে নিক্ষেপ করার পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে। এতে হয়তো অনেক টাকা লাগবে। কিন্তু যে ক্ষতি হচ্ছে সে তুলনায় ঐ টাকা কিছুই না।

তিনি বৃহস্পতিবার সকালে বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় পরির্দশনে এসে এসব কথা বলেন।

তিনি এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়নে বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের পাশাপাশি নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়কে যৌথভাবে কাজ করার নির্দেশ দেন। এর বাইরে রাজধানীর হাতিঝিলেও একটি ইটিপি স্থাপন করার কথা জানান শেখ হাসিনা।

শেখ হাসিনাে আরও বলেন, সমুদ্রে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বাংলাদেশের কিছু অংশ তলিয়ে যেতে পারে। এ বিষয়টাকে মাথায় রেখেই পরিকল্পনা নিতে হবে। নদী-খালগুলোকে খনন করে পানির ধারণ ক্ষমতা বাড়াতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা সমুদ্রসীমা অর্জন করেছি। চরকুকরি মুকরিসহ আরও বিপুল এলাকা জেগে উঠেছে। আমরা নিজেদের এসব সম্পদকে যদি কাজে লাগাতে পারি তাহলে উন্নত দেশে পরিণত হওয়া সম্ভব।

এ সময় বন ও পরিবেশ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জুসহ মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

You Might Also Like