শিশুদের নাইটক্লাব!

গান বাজছে, ড্যান্সিং ফ্লোরে নেই তিল ধারণের জায়গা, পানশালার পানীয় বিক্রির স্থানটুকুও সরগরম—এটি নাইটক্লাবের সাধারণ চিত্র। তবে এগুলোর সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের কিরকিজ নামের নাইটক্লাবের বিশেষত্ব হলো, এই আয়োজন শিশুদের জন্য।

ছোট বয়সেই নাইটক্লাবের আমেজ দিতে শিশুদের জন্য এই বিশেষ আয়োজন। এখানে যারা এসেছে, তাদের বয়স ৬ থেকে ১২ বছরের মধ্যে। এদের কারও পরনে রোবটের মতো পোশাক, কেউবা পরেছে পুলিশের পোশাক, আবার কেউ সেজেছে স্পাইডারম্যান বা সুপারম্যানের মতো। ডিজের চালানো গানের তালে তালে নেচে-গেয়ে আনন্দ উদযাপনে ব্যস্ত তারা সবাই। সন্তানদের আনন্দ দেখে ড্যান্সিং ফ্লোরের বাইরে দাঁড়িয়ে খুশি বাবা-মাও। তাঁদের কেউ কেউ সন্তানদের উৎসাহ দিচ্ছেন, আবার কেউ ব্যস্ত সন্তানের আনন্দের মুহূর্তের ছবি তুলতে।

লরা ল্যামপার্ট নামের এক মা বার্তা সংস্থা এএফপিকে বললেন, ‘বিষয়টা আমার খুব ভালো লাগছে। আমার মেয়ে খুবই ভালো সময় কাটিয়েছে। এখানে অনেক আনন্দ হয়। আর জায়গাটা শিশুদের জন্য নিরাপদও।’

ডিজের দায়িত্ব পালন করা আট বছরের অ্যালডেন বলল, ‘এটা অসাধারণ। আর সবচেয়ে ভালো ব্যাপার হলো, যখন ডিজে বুথে থেকে সবার নাচের জন্য গান বাজিয়ে চলছিলাম।’ তবে শুধু ডিজেগিরি করেই ক্ষান্ত হয়নি সে, সময়-সুযোগমতো ড্যান্সিং ফ্লোরে নেমে এসে অন্যদের সঙ্গে নাচেও অংশ নিয়েছে।
৬-১২ বছর বয়সী শিশুদের সঙ্গে ছোট ভাইবোন, বাবা-মাসহ তিন শতাধিক মানুষ এই নাইটক্লাবে জড়ো হয়েছিল। মাসে একবার শিশুদের এই নাইটক্লাবে নিয়ে আসা যায়। কারণ, ওই দিনটি শুধু শিশুদের জন্যই বরাদ্দ থাকে।

তবে কীভাবে নাইটক্লাবে আসা বাচ্চা-কাচ্চাদের সামাল দেওয়া যাবে, সে বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। আর এ কাজটি করেন নাটালি এলিজাবেথ। তিনি বলেন, এ ধরনের কর্মকাণ্ড শিশুমনের বিকাশে সহায়তা করবে। এটি মানুষের সেই চর্চার কাছে নিয়ে যাবে, সেখানে সবাই জড়ো হয়ে নাচ-গান করে আনন্দময় সময় কাটাতে পারে।

You Might Also Like