বিএনপির আন্তর্জাতিক সম্পাদক মহিদুর রহমানেকে শোকজ নোটিশ

অনুমতি ছাড়া ফিনল্যান্ড বিএনপির নতুন কমিটিতে নাম অন্তর্ভূক্তির কারণে ফিনিশ আইনজীবি মিঃ তিমু কসকিনেন যুক্তরাজ্য বসবাসরত বিএনপির কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক সম্পাদক মহিদুর রহমানের কাছে শোকজ নোটিশ পাঠিয়েছেন।

তাছাড়া এই কমিটি গঠনে মহিদুর রহমানের সাথে ফিনল্যান্ড প্রবাসী মুজিবুর রহমান হিরকের যোগসাজস থাকায় তাকেও শোকজ নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

এই শোকজ নোটিশে উল্লেখ আছে যে, কোন রকমের মতামত বা অনুমতি ছাড়া ফিনল্যান্ড বিএনপির নতুন কমিটিতে ফিনল্যান্ড প্রবাসী আবুল হাশেম চৌধুরী, মোঃ শরিফুল ইসলাম, বদরুম ফেরদৌস, মবিন মোহাম্মদ, এজাজুল হক রুবেল, মোঃ মোকলেসুর রহমান (চপল), প্রদীপ কুমার সাহা, আওলাদ হোসেন, তাপস খান, মিজানুর রহমান (মিঠু) ও নিজাম উদ্দিন আহমেদের নাম অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে যা ফিনিশ পেনাল কোড অনুযায়ী দণ্ডনীয় অপরাধ।

এই ধরণের প্রতারনা ও জালিয়াতির অপরাধে পুলিশী তদন্ত সাপেক্ষে ফিনিস ফৌজদারী আইনে কেন তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা যাবে না, তার জবাব চেয়ে উভয়কে আগামী সেপ্টেম্বর মাসের ১৪ তারিখ পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, ফিনিশ নাগরিক বা ফিনল্যান্ডে বৈধভাবে বসবাসকারী কাউকে তার মতামত বা অনুমতি ছাড়া কোন সংগঠন, সমিতি বা রাজনৈতিক দলের সদস্য বা কোন পদে নিয়োগ দেওয়া দণ্ডনীয় অপরাধ।

উকিল নোটিশে আরো উল্লেখ আছে যে, ফিনল্যান্ড বিএনপির নতুন কমিটি অনুমোদন দিয়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব গত ২৪ শে জুন স্বাক্ষর করেন, যার তালিকা বিএনপির কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক সম্পাদক মহিদুর রহমানের দ্বারা প্রেরিত হয়েছে।

এব্যপারে আরও কাউকে শোকজ করা হবে কিনা জানতে চাইলে ফিনিশ আইনজীবি মিঃ তিমু কসকিনেন তা জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য নব গঠিত ১০০ সদস্য বিশিষ্ট ফিনল্যান্ড বিএনপির নতুন কমিটিতে ৪২ জনের কোন নাম ঠিকানা নাই, অর্থাৎ তারা আদৌ ফিনল্যান্ডে বসবাস করেন কিনা বা ঐ নামে কেহ আছে কিনা তার হদিস পাওয়া যায় নাই এবং বাকী ৫৮ জনের মধ্যে ৪২ জন এই কমিটির সাথে সম্পৃক্ত নয় বলে ইতিমধ্যে বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় বিবৃতি প্রদান করেছেন।

তাছাড়া ফিনল্যান্ড আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকসহ পাঁচ নেতা এই কমিটিতে তাদের নাম দেখে বিস্ময় প্রকাশ ও প্রতিবাদ করেছেন।

ফিনল্যান্ড বিএনপির বিভক্তির জন্য দায়ী করা হচ্ছে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মহিদুর রহমান, যুক্তরাজ্য বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ব্যারিষ্টার আবু সায়েম ও আনোয়ার হোসেন খোকনকে। ফিনল্যান্ড, জার্মান, সুইডেন, অষ্ট্রিয়া, সুইজারল্যান্ড, ফ্রান্স ও বেলজিয়াম সহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশের বিএনপির নেতাকর্মীরা এটাকে কমিটি বা পদ বানিজ্য বলেও আখ্যায়িত করেছেন।

You Might Also Like