৬০০ কোটি আয়, তবু লাভের খাতায় শূন্য!

আগামী ২৮ এপ্রিল মুক্তি পাচ্ছে চলতি বছরের বহুল প্রতীক্ষিত সিনেমা বাহুবলি-দ্য কনক্লুশন। ২০১৫ সালের বাহুবলি-দ্য বিগিনিং সিনেমার সিক্যুয়েল এটি। মুক্তির পর থেকেই বক্স অফিসে রেকর্ড গড়তে থাকে বাহুবলি-দ্য বিগিনিং। শেষ পর্যন্ত বক্স অফিসে ৬০০ কোটি রুপির উপরে আয় করে সিনেমাটি। কিন্তু সিনেমাটি থেকে নাকি কোনো লাভই পাননি নির্মাতারা। বাহুবলি-দ্য কনক্লুশন সিনেমাটি মুক্তির পরই লাভবান হবেন তারা।

বিষয়টির ব্যাখ্যা দিয়ে সিনেমাটির পরিবেশক অক্ষয় রেথি ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘দুটো সিনেমার বাজেট, প্রোডাকশন ও মার্কেটিং খরচ প্রায় ৪৫০ কোটি রুপি। পুরো বাহুবলি ফ্র্যাঞ্চাইজি দুটি সিনেমা করছে। নির্মাতারা বেশির ভাগ অর্থই সেট এবং লোকেশনের পেছনে খরচ করেছেন। এমনকি বাহুবলি-দ্য বিগিনিং মুক্তির আগেই বাহুবলি-দ্য কনক্লুশন সিনেমার কিছু দৃশ্য শুটিং করতে হয়। তাই পুরো লাভের হিসাব দুটো সিনেমা মিলেই করতে হবে।’

একমাত্র করন জোহরই কী বাহুবলি-দ্য বিগিনিং সিনেমা থেকে লাভবান হয়েছেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে অক্ষয় রেথি বলেন, ‘করন জোহরই একমাত্র হিন্দি সংস্করনের পরিবেশক ছিলেন। সুতরাং তিনি একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ দিয়েছিলেন এবং তা তুলেও নিয়েছেন। বাহুবলি-দ্য কনক্লুশন সিনেমাটি মুক্তি পেলে নির্মাতা অবশ্যই লাভবান হবেন। এমনকি এ ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাই লাভবান হবে। দুটো সিনেমার প্রদর্শন স্বত্ব থেকে প্রায় ৬০০ কোটি রুপি আয় হবে। তাই নিমার্তা কমপক্ষে ১৫০-২০০ কোটি রুপি লাভ করবেন। ’

বাহুবলি-দ্য কনক্লুশন সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন এসএস রাজামৌলি। সিনেমাটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন- প্রভাস, রানা দাগ্গুবতি, আনুশকা শেঠি, তামান্না ভাটিয়া, সত্যরাজ, রামায়া কৃষ্ণাসহ অনেকে।