সিআইএ’র পরিচালক হিসেবে উইলিয়াম বার্নসকে কেন বেছে নিলেন জো বাইডেন

নির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার প্রশাসনের দায়িত্ব পালনের সময় কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ’র প্রস্তাবিত পরিচালকের নাম ঘোষণা করেছেন। আগামী ২০ জানুয়ারি বাইডেন শপথ গ্রহণ করার পর সাবেক উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও অভিজ্ঞ কূটনীতিবদ উইলিয়াম বার্নস সিআইএ’র পরিচালকের দায়িত্ব গ্রহণ করবেন।

২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে ছয় জাতিগোষ্ঠীর যে পরমাণু সমঝোতা সই হয়েছিল তাতে আমেরিকার পক্ষে আলোচক হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন বার্নস। এছাড়া, মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক বিশেষজ্ঞ হিসেবে এ অঞ্চলের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সংকট সমাধানে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।

আমেরিকার রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাট উভয় দলের পাঁচজন প্রেসিডেন্ট ও ১০ জন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর অধীনে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নীতি নির্ধারণকারী ভূমিকা পালন করেছেন উইলিয়াম বার্নস। রাশিয়া ও জর্দানে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতাও তার ঝুলিতে রয়েছে।

বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পররাষ্ট্রনীতির ঘোর বিরোধী ছিলেন উইলিয়াম বার্নস। তিনি বহুবার ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে আমেরিকার বেরিয়ে যাওয়ার বিরোধিতা করে বক্তব্য দিয়েছেন।

একইসঙ্গে ইরানের কুদস ফোর্সের সাবেক কমান্ডার লে. জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন উইলিয়াম বার্নস। মার্কিন সিনেট সিআইএ’র প্রধান হিসেবে বার্নসকে নিয়োগ দেয়ার বিষয়টি অনুমোদন করলে তিনি জিনা হ্যাস্পেলের স্থলাভিষিক্ত হবেন। ২০১৮ সালের মার্চ মাসে সিআইএ’র প্রথম নারী পরিচালকের দায়িত্ব পেয়েছিলেন হ্যাস্পেল।#

পার্সটুডে