রাশিয়ার সব টিকাই কার্যকর: পুতিন

রাশিয়ার তৈরি করোনাভাইরাসের সব টিকাই কার্যকর বলে দাবি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি এও বলেন, টিকা পাওয়া পৃথিবীর সব মানুষের অধিকার।

পুতিন বলেছেন, রাশিয়ায় বর্তমানে দুটি নিবন্ধিত টিকা রয়েছে। এ দুটি টিকা পুরোপুরি কার্যকর। শিগগিরই তৃতীয় টিকার নিবন্ধনের জন্য আবেদন করব আমরা।

মঙ্গলবার তিনি সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশনের (এসসিও) সম্মেলনে ভিডিও কনফারেন্সের বক্তব্য দেয়ার সময় এসব কথা বলেন পুতিন। খবর রয়টার্স ও সিএনবিসিরি।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট বলেন, আমাদের দেশে দুটি নিবন্ধিত ভ্যাকসিন রয়েছে। গবেষণায় এসেছে যে, এই দুটি ভ্যাকসিন নিরাপদ এবং এগুলোর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। এগুলো খুবই কার্যকর।

পুতিন আরও বলেন, কোভিড-১৯ প্রতিরোধে মস্কো বিশ্বের অন্যান্য দেশেও টিকা সরবরাহের জন্য প্রস্তুত। কিন্তু রাজনৈতিক কারণে বিষয়টি বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

তিনি বলেন, করোনার টিকা পাওয়া পৃথিবীর সব মানুষের অধিকার। টিকার জন্য আমরা সব দেশের সঙ্গে একযোগে কাজ করতে চাই।

পুতিনের এমন বক্তব্যের আগের দিন সোমবার মার্কিন কোম্পানি ফাইজার ও জার্মান কোম্পানি বায়োএনটেক ঘোষণা দেয়, তাদের পরীক্ষামূলক টিকা ৯০ শতাংশের বেশি কার্যকর।

প্রসঙ্গত রাশিয়া এখন পর্যন্ত করোনার দুটি টিকা তৈরি করেছে। প্রথম টিকাটির নাম ‘স্পুটনিক-৫’। দ্বিতীয়টির নাম ‘এপিভ্যাককরোনা’।

গত আগস্টে রাশিয়া প্রথম টিকার অনুমোদন দেয়। বিশ্বের কোনো দেশে রাষ্ট্রীয় অনুমোদন পাওয়া প্রথম করোনা টিকা এটি।

করোনার দ্বিতীয় টিকার অনুমোদন দেয়া হয় অক্টোবরের মাঝামাঝি।

পরীক্ষার সব কটি ধাপ পুরোপুরি অনুসরণ না করায় রাশিয়ার তৈরি করোনার টিকা নিয়ে পশ্চিমা গবেষকদের মধ্যে সন্দেহ আছে।

তবে রাশিয়া বারবার দাবি করে আসছে, তাদের টিকা কার্যকর ও নিরাপদ।

এমনকি পুতিন দাবি করেছেন, তার মেয়ে এই টিকা নিয়েছেন। টিকা নেয়ার পর তার শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে।

ইতিমধ্যে অনেক দেশের কাছ থেকে টিকার ক্রয়াদেশও পাওয়ার কথা জানিয়েছে রাশিয়া।