রাজবাড়ীতে বন্দুকযুদ্ধে ‘ডাকাত সর্দার’ নিহত,অস্ত্র উদ্ধার

রাজবাড়ীর পাংশায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ‘ডাকাত সর্দার’ আব্দুর রব (২৮) নিহত হয়েছেন।
উপজেলার কলিমহর ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের মুন্নাফের বাঁশবাগানে রবিবার রাত পৌনে ১টার দিকে এ বন্দুকযুদ্ধ হয়।
পুলিশের দাবি, ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শুটারগান, দুটি কার্তুজ ও চারটি কার্তুজের খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় পাংশা থানার দুই উপ-পরিদশর্কসহ (এসআই) পুলিশের তিন সদস্য আহত হন।
নিহত আব্দুর রব পাংশার কলিমহর ইউনিয়নের ফলিমারা গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে।
পাংশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু শ্যামা মো. ইকবাল হায়াত জানান, পাংশা থানা পুলিশ ডাকাত সর্দার আব্দুর রবকে গ্রেফতার করে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী অস্ত্র উদ্ধারের জন্য কলিমহর ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের মুন্নাফের বাঁশ বাগানে যায়। এ সময় রব গ্রুপের সদস্যরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলিবর্ষণ শুরু করে। পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। ডাকাতের গুলিতে আহতাবস্থায় আব্দুর রবকে উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
ওসি আরও জানান, বন্ধুকযুদ্ধে আহত হন পাংশা থানার এসআই আবু সায়েম, এসআই হাফিজুর রহমান ও কনস্টেবল রফিকুল ইসলাম। এ ছাড়া ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শুটারগান, দুটি কার্তুজ ও চারটি কার্তুজের খোসা উদ্ধার করা হয়। ডাকাত সর্দার আব্দুর রবের বিরুদ্ধে পাংশা, কালুখালী ও কুষ্টিয়ার কুমারখালী থানায় একটি করে ডাকাতির মামলা রয়েছে।
লাশের সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হবে বলেও জানান তিনি।