বৈরুতে বিস্ফোরণে বেড়েই চলেছে মৃত্যু

মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) লেবাননের রাজধানী বৈরুতে শক্তিশালী এক বিস্ফোরণে অন্তত অর্ধশতাধিক লোকের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম এনএনএ নিউজ। নিহতদের মধ্যে রাজনৈতিক দল কাতায়েবের মহাসচিব নাজার নাজারিয়ানও রয়েছেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী হামাদ হাসানের উদ্ধৃতি দিয়ে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম টেলিলিবান অন্তত ৭৩ জন নিহতের খবর দিয়েছে।

বিস্ফোরণের সময় নিজের কার্যালয়ে ছিলেন নাজারিয়ান। ‍গুরুতর আহত অবস্থায় মারা যান তিনি। বৈরুত বন্দরের কাছের ওই বিস্ফোরণে অন্তত ৭৩ জন মারা গেছেন বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী হামাদ। এছাড়া কমপক্ষে ৩৭০০ জন লোক আহত হয়েছেন বলে জানান তিনি।

বিস্ফোরণের কারণ এখনও অজানা। প্রায় তিন হাজার লোক আহত ও অর্ধশত নিহত তো হয়েছেই, শহরজুড়ে শুধু ধ্বংসের চিহ্ন। এমনকি রক্ষা পায়নি প্রেসিডেন্টের দাপ্তরিক বাসভবন ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ও। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

রাজধানীর বহু হাসপাতাল জুড়ে শতাধিক আহতদের চিকিৎসা নিতে দেখা গেছে। জরুরি বিভাগে ছিল উপচে পড়া ভিড়। শহরের অন্যতম প্রধান হাসপাতাল আমেরিকান ইউনিভার্সিটি অব বৈরুত মেডিক্যাল সেন্টারের জরুরি বিভাগে আহতদের জায়গা না পেয়ে অন্য হাসপাতালে যেতে হয়েছে।

লেবাননের রেড ক্রস, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও রাজনীতিকরা হাসপাতালগুলোতে আহত ব্যক্তিদের রক্ত দিতে দেশবাসীকে আহ্বান জানান।

বিভিন্ন ছবিতে আহত ব্যক্তিদের রক্তাক্ত অবস্থায় হেঁটে হাসপাতালে যেতে দেখা গেছে। অনেকে রাস্তায় পড়ে ছিলেন।

স্থানীয় কর্তৃপক্ষ হতাহতের প্রকৃত সংখ্যা জানাতে না পারলেও জরুরি সেবার কর্মী ও রাজনীতিকরা শঙ্কা প্রকাশ করেছেন যে মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।