প্রেমিকার পর প্রেমিকের আত্মহত্যা

প্রেমের সম্পর্ক জানাজানি হলে পরিবার থেকে মেনে নেওয়া হয়নি সেই সম্পর্ক। নানাভাবে অপদস্থ আর অপমান করা হয় কলেজছাত্রী সামিরা আলম নিকাকে (১৮)।

ভালোবাসার মানুষটিকে পরিবার মেনে না নেওয়ায় নিজেই আত্মহননের পথ বেছে নেন সামিরা। নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করেন এই তরুণী।

প্রেমিকার আত্মহত্যার খবর জেনে দেড় মাস ধরে নিজেকে সামলে রাখার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়ে সর্বশেষ জাবেদ হোসেন (২২) নামের প্রেমিক তরুণটিও বিষপানে আত্মহত্যা করেন।

সোমবার চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলায়।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ফটিকছড়ি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র জাবেদের সঙ্গে একই ক্লাসের ছাত্রী সামিরার এক বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। সম্প্রতি তাদের এই প্রেমের সম্পর্কের বিষয়টি পরিবারে জানাজানি হলে অভিভাবকরা বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি। এ অবস্থায় সামিরার পরিবার জাবেদের সঙ্গে সম্পর্ক রাখতে বাধা দিলে তিনি গত ২৪ মার্চ নিজের শরীরে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। প্রেমিকার আত্মহত্যার পর জাবেদ মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। প্রায় দেড় মাস ধরে প্রেমিকার আত্মহত্যার শোক ভুলে যাওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে গত রোববার সন্ধ্যায় জাবেদও বিষপান করেন। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় জাবেদকে প্রথমে ফটিকছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার ভোরের দিকে মারা যান।