নিউজিল্যান্ডে কঠোর লকডাউন প্রত্যাহার হচ্ছে

মাসখানেকের কঠোর লকডাউন প্রত্যাহার করে নিচ্ছে নিউজিল্যান্ড। সোমবার স্থানীয় সময় রাত ১২টার পর থেকে বিধিনিষেধের মাত্রা চতুর্থ থেকে তৃতীয় স্তরে নামবে।

তাতে মঙ্গলবার থেকে সংসদ ও আদালত আবার খুলবে। শর্তসাপেক্ষে ৪ লাখ মানুষ আবার কাজে ফিরবে। এতদিন ধরে বন্ধ থাকা স্কুল মুখরিত হবে বাচ্চাদের হৈ-হুল্লোড়ে

গত ২৬ মার্চ থেকে ঘরবন্দি মানুষের মনে তাই ফিরছে স্বস্তি। অবশ্য দোকানপাট ও রেস্তোঁরা খুলছে না। লোকজন মাছ ধরার পাশাপাশি সার্ফিং, হাইকিং ও শিকার করতে পারবে।

লকডাউনের তৃতীয় স্তর থাকবে ১১ মে পর্যন্ত। তারপর মন্ত্রিপরিষদ এটা আরো বাড়ানোর কিংবা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত জানাবে।

কঠোর লকডাউন জারি করে বেশ সুফল পেয়েছে নিউজিল্যান্ড। মাত্র ১৪৬৯ জন করোনায় আক্রান্ত, আর মৃত্যু হয়েছে ১৯ জনের। বিশ্বের বড় বড় দেশগুলো যেখানে ধুঁকছে, সেখানে করোনাকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারা বিরাট সাফল্য। নিউজিল্যান্ড প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন বলেছেন, ‘প্রায় পাঁচ সপ্তাহ আমরা যেভাবে জীবনযাপন করলাম, তা দুই মাসে আগে ভাবা ছিল অকল্পনীয়। কিন্তু আমরা সবাই একসঙ্গে তা করে দেখিয়েছি।’

আবার যেন করোনা থাবা না বসায় তা নিয়ে প্রত্যেককে সতর্ক থাকতে বলেছেন আর্ডার্ন, ‘আবার যেন করোনা আমাদের জীবনকে বিষিয়ে না তোলে তা নিশ্চিত করতে হবে।’