দেশের মানুষের খাদ্যের অভাব নেই

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ‘এক সময় দেশের সাড়ে সাত কোটি মানুষের খাদ্যের অভাব ছিল। আজ দেশে প্রায় ১৬ কোটি মানুষ। তবু মানুষের খাদ্যের কোনো অভাব নেই।’

রোববার চট্রগ্রাম রেলওয়ে পলোগ্রাউন্ড মাঠে চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডষ্ট্রির উদ্যোগে মাসব্যাপী অষ্টম ইন্টারন্যাশনাল উইম্যানস এসএমই এক্সপো বাংলাদেশ-২০১৪ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো, দি ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডষ্ট্রি (এফবিসিসিআই), শিল্প মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠিত এসএমই ফাউন্ডেশন ও জুট ডাইভার্সিফিকেশন প্রমোশন সেন্টারের সহযোগিতায় এ মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এ সময় দেশে খাদ্যের কোনো অভাব নেই জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘শুধু যে খাদ্যের অভাব নেই তা নয়। আমরা এখন চাউল রপ্তানি শুরু করেছি। বাংলাদেশ এখন আর তলাবিহীন ঝুড়ি নয়। আমেরিকার নীতি নির্ধারকরা এখন বলেন বাংলাদেশ হচ্ছে মিরাক্কেল। এ অগ্রযাত্রা অব্যাহত রেখে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত দেশে পরিণত করা হবে।’

তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে বাংলাদেশের রপ্তানি বাণিজ্য হবে ৫০ বিলিয়ন ডলার। ২০২১ সালের আগেই বাংলাদেশ বিশ্বের মধ্যে একটি মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে। দেশের জনসংখ্যার অর্ধেক নারী। অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য নারীরা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে যাচ্ছেন। সরকার নারীদের উন্নয়নে বাজেটে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রেখেছে। এর ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। সরকার এজন্য সব ধরনের সহযোগিতা দিয়ে যাবে।’

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘শুন্যহাতে যাত্রা শুরু করে আজ বাংলাদেশের রপ্তানি ৩০ দশমিক ১৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ব্যাংকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ২২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি এবং রেমিটেন্স ১৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ছাড়িয়ে গেছে। বাংলাদেশের সব অর্থনৈতিক সূচক এখন ঊর্ধ্বগামী। অর্থনৈতিকভাবে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেছে। বিশ্বে এখন বাংলাদেশ মর্যাদাশীল দেশ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। সরকার আটটি ইকোনমিক জোন গড়ে তোলার কাজ হাতে নিয়েছে। এর মধ্যে দুটি চট্রগ্রামে হবে। একটি মিরেসরাই এবং একটি আনোয়ারায় হবে। কারণ অর্থনৈতিকভাবে চট্রগ্রাম খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

উল্লেখ্য, মাসব্যাপী এ মেলায় ৩০০ স্টল, ২০টি প্যাভিলিয়ন রয়েছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত মেলা সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। মেলায় প্রবেশ মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫ টাকা। এতে বাংলাদেশের পাশাপাশি ইরান, পাকিস্তান ও ভারতের উদ্যোক্তারা অংশ নিয়েছেন।

চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডষ্ট্রির প্রেসিডেন্ট মিসেস কামরুন মালেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন মহিলা ও শিশু বিষয়কমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এবং এফবিসিসিআইর প্রেসিডেন্ট কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন মেহেজাবিন মোরশেদ এমপি, ওয়াসিকা আয়শা খান এমপি, এফবিসিসিআইর প্রথম সহ সভাপতি ও চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডষ্ট্রির প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট মনোয়ারা হাকিম আলী, এফবিসিসিআইর ভাইস প্রেসিডেন্ট হেলাল উদ্দিন।

You Might Also Like