চেন্নাই থেকে বাদ পড়ছেন ৩ ক্রিকেটার

আগামী মৌসুমেও মহেন্দ্র সিং ধোনি যে চেন্নাই সুপার কিংসর নেতা থাকছেন সেটা স্পষ্ট হয়ে গেছে। তবে ২০২১ আইপিএলের আগে চেন্নাই সুপার কিংস নতুনভাবে দল সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে। সেই উদ্যোগের বাস্তবায়ন এখন থেকেই শুরু হয়ে গেছে। তবে কোনো নিলাম না হওয়ায় অনেক ক্রিকেটার পরিবর্তনের সম্ভবনা নেই। ফ্র্যাঞ্চাইজি সূত্রে জানা গেছে, অন্তত তিনজন ক্রিকেটারকে বাদ দিতে যাচ্ছে চেন্নাই সুপার কিংস। সম্ভাব্য সেই তিন জন সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

১. শেন ওয়াটসন: চেন্নাই সুপার কিংস টিম ম্যানেজমেন্ট এই বছরেও শেন ওয়াটসনকে স্কোয়াডে রেখেছিল। তবে অজি তারকা ম্যানেজমেন্টের আস্থার মর্যাদা দিতে পারেননি। ১১ ম্যাচে ১২১.০৫ স্ট্রাইক রেটে করেছেন মাত্র ২৯৯ রান। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ৮৩ রান করেন। সেটাই তার একমাত্র হাফ-সেঞ্চুরি। ওই ম্যাচে ফাফ ডুপ্লেসিসের সঙ্গে ওপেনিং জুটিতে ১৮১ রানের পার্টনারশিপ গড়েন তিনি। তবে বাকি ম্যাচগুলোতে তিনি নিষ্প্রভ। শেষ ম্যাচে তো প্রথম একাদশে সুযোগই পেলেন না। বিগ ব্যাশ থেকে আগেই অবসর নিয়ে ফেলেছেন ওয়াটসন। আসন্ন মৌসুমে তাকে সম্ভবত আর আইপিএলে দেখা যাবে না।

২. পীযুষ চাওলা: পীযুষ চাওলাকে অনেক আশা নিয়ে কলকাতা নাইট রাইডার্স থেকে নিয়ে আসা হয়েছিল। ৬.৭৫ রুপিতে পীযুষকে কিনেছিল চেন্নাই সুপার কিংস। হরভজনের অনুপস্থিতিতে তাকেই স্পিন বোলিংয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়। তবে ৭ ম্যাচে ৬ উইকেট নেওয়া বাদে পীযুষ চাওলার সেরকম কোনো অবদান নেই। ইকোনমি রেট ৯.০৯। এই কারণেই শেষের ছয় ম্যাচে তাকে বসিয়ে দেওয়া হয়। নিলামে তিনিই ছিলেন ভারতীয় স্পিনারদের মধ্যে সবথেকে দামি। তবে আগামী মৌসুমে তার না থাকার সম্ভাবনাই বেশি। থাকলেও খুব কম দামে রাখা হবে।

৩. কেদার যাদব: অধিনায়ক ধোনির সবচেয়ে প্রিয় ক্রিকেটার বলে পরিচিত কেদার যাদব পুরো টুর্নামেন্টে ৬৬ বল খেলে করেছেন ৬২ রান। স্ট্রাইক রেট ৯৩.৯৩। জঘন্য ব্যাটিং পারফরম্যান্সের নিদর্শন রাখায় টুর্নামেন্টের মাঝপথেই প্রথম একাদশ থেকে বের করে দেওয়া হয়েছিল। ৮ ম্যাচ খেলার বিপরীতে বসে ছিলেন ৬ ম্যাচ। ২০১৮ সালের নিলামে ৭.৮ কোটি রুপিতেচেন্নাই সুপার কিংস কিনেছিল কেদারকে। এমন পারফরম্যান্সের পর তাকে যে আর রাখা হবে না; সেটা নিশ্চিত। চেন্নাই সুপার কিংস রিলিজ করে দিলে অন্য কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজিতে তিনি সুযোগ পান কিনা, সেটা নিয়েও যথেষ্ট সংশয় আছে।