খালেদা জিয়া সত্যিই অসুস্থ, সুচিকিৎসা প্রয়োজন: মির্জা ফখরুল

কারাগারে থাকা বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবস্থা খুব ভালো নয়। তিনি প্রয়োজনীয় চিকিৎসা পাচ্ছেন না। এমনটাই জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সাবেক প্রধানমন্ত্রী সত্যিকার অর্থেই শারীরিক দিক থেকে অসুস্থ। তবে, মানসিক দিক থেকে তার মনোবল এখনো অনেক দৃঢ় বলেও জানান তিনি।

আজ (শুক্রবার) বিকেলে রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডের পুরাতন কারাগারের সামনে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান বিএনপি মহাসচিব। কারা কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে যান তিনি। দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় অবস্থান শেষে বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে কারাগার থেকে বেরিয়ে আসেন বিএনপি মহাসচিব।
তিনি বলেন, ওনার অসুস্থতার খবর পাওয়ার পর থেকেই আমরা খুব উদ্বিগ্ন ছিলাম। তার স্নায়ুসংক্রান্ত সমস্যা বেড়ে যাওয়ার পাশাপাশি ওনার হাঁটতেও খুব কষ্ট হয়। সেখানে তিনি প্রয়োজনীয় চিকিৎসা পাচ্ছেন না।

ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের দিয়ে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের দেখা করতে দেয়া হচ্ছে না। প্রয়োজনীয় চিকিৎসা না পাওয়ার কারণ হচ্ছে, তিনি দীর্ঘদিন ব্যক্তিগত চিকিৎসকের অধীনে ছিলেন। তাই অবিলম্বে আমরা তার চিকিৎসকদের সঙ্গে দেখা করতে দেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। এটা অত্যন্ত জরুরি। কারণ, তার চিকিৎসকরা জানেন তার কি সমস্যা, কি চিকিৎসা দিতে হবে।

তিনি আরো বলেন, দেশে বর্তমানে যে সংকট বিরাজ করছে তার থেকে মুক্তির জন্য জনগণকে সঙ্গে নিয়ে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন খালেদা জিয়া।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার শুনানিতে তাকে হাজির করার নির্দেশ থাকলেও অসুস্থতার কারণে খালেদা জিয়াকে হাজির করে নি কারা কর্তৃপক্ষ। এরপর থেকে তার অসুস্থতা নিয়ে নানা কথা ওঠে। চিকিৎসার জন্য ১ এপ্রিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চারজন চিকিৎসক খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন। তবে তারা কি দেখেছেন তা গণমাধ্যমকে জানায় নি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হয়। এরপর থেকে পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে তাকে রাখা হয়েছে।