ইন্দোনেশিয়ায় বিধ্বস্ত বিমানের যাত্রীদের সন্ধানে মানববিহীন ডুবোযান

তিন দিন আগে উড্ডয়নের পর সমুদ্রে বিধ্বস্ত হওয়া শ্রীবিজয়া বিমানটির ফ্লাইট রেকর্ডার উদ্ধার ও নিখোঁজদের সন্ধানে ডুবুরিদের সহায়তা করতে মানববিহীন ডুবোযান ব্যবহার করেছে ইন্দোনেশিয়া।

 

শনিবার বিকালে জাভা সাগরে ৬২ যাত্রী নিয়ে বোয়িং ৭৩৭-৫০০ বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে।

জাকার্তার প্রধান বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের ৪ মিনিটের মাথায় এটি ধ্বংস হয়ে যায়। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এমন খবর দিয়েছে।

শনিবার প্রথম এক আক্রান্তকে শনাক্ত করেছে ইন্দোনেশিয়ার পুলিশ। আঙুলের ছাপ থাকায় বিমানবালা ওক্কি বিসমাবেকে শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে।

এর আগে ২০১৮ সালে জাভা সাগরে লায়ন এয়ার বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স বিধ্বস্ত হওয়ার পর ১৮৯ যাত্রী ও ক্রু নিহত হয়েছিলেন।

অনুসন্ধান ও উদ্ধার সংস্থার মুখপাত্র ইউসুফ লতিফ বলেন, আজ আমরা নিখোঁজদের অনুসন্ধানেই বেশি জোর দিচ্ছি।

কর্মকর্তারা বলেন, ব্ল্যাকবক্স নামে পরিচিত ফ্লাইট রেকর্ডার কোথায় আছে, তা খুঁজে বের করার খুব কাছাকাছি অবস্থায় চলে গেছেন ডুবুরিরা। কিন্তু ধ্বংসাবশেষের কারণে অনুসন্ধান কাজ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

উদ্ধারকাজে সাগরতলে চষে বেড়াতে সহায়তা করতে দূর-নিয়ন্ত্রিত ডুবোযান ব্যবহার করা হচ্ছে। নৌবাহিনীর জাহাজ থেকে শব্দতরঙ্গের সাহায্যে এই অনুসন্ধান কাজ চলছে।