ইথিওপিয়ায় জরুরি অবস্থা জারি

ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের একদিন পরই দেশটিতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। ইথিওপিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম ইবিসি জানিয়েছে, মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকের পর শুক্রবার জরুরি অবস্থা জারি করা হয়।
স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানায়, শুক্রবার থেকে এ জরুরি অবস্থা শুরু হলেও তা কতদিন থাকবে সে বিষয়টি স্পষ্ট করা হয়নি। অ্যাডিস স্টান্ডার্ড নামে একটি স্থানীয় পত্রিকায় সরকারের একটি ঘনিষ্ট সূত্রের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, জরুরি অবস্থা তিন থেকে ছয় মাস রাখার বিষয়ে মন্ত্রিসভায় আলোচনা হয়েছে।
রাজনৈতিক স্বাধীনতার দাবিতে ২০১৭ সালে সরকারবিরোধী আন্দোলনে শতাধিক মানুষ নিহত হওয়ার পর ১০ মাসের জরুরি অবস্থা জারি ছিল ইথিওপিয়ায়।
ইথিওপিয়ায় বৃহত্তর রাজনৈতিক অন্তর্ভুক্তি ও মানবাধিকার লঙ্ঘন বন্ধের দাবিতে ২০১৫ সাল থেকে আন্দোলন করে আসছে দেশটির ওরোমো ও আমহারা জনগোষ্ঠীর বাসিন্দারা। দেশটির মোট জনসংখ্যার ৬১ শতাংশ তারা।
ওরোমো মিডিয়া নেটওয়ার্কের প্রধান জাওয়ার মোহাম্মদ এই জরুরি অবস্থাকে অপ্রয়োজনীয় এবং ক্ষতিকর বলে অভিহিত করেছেন। শুক্রবার তিনি ফেসবুকে লিখেছেন, দেশে শান্তি বজায় রাখার জন্য জরুরি অবস্থা ঘোষণার মতো পদক্ষেপ ব্যর্থ। ইতোমধ্যে তা প্রমাণিত হয়েছে।
ফিলিক্স হোর্ন নামে ইথিওপিয়ার একজন মানবাধিকার কর্মী টুইটারে লিখেছেন, গতবারের জরুরি অবস্থার সময় ২০ হাজারেরও বেশি মানুষ আটক করা হয়। এ ঘটনায় মুক্তিপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা আরও উদ্বিগ্ন হবেন। জরুরি অবস্থাও আর কাজে আসবে না।
সূত্র: আলজাজিরা