অটোরিকশায় পেট্টোলবোমা, মা-ছেলে-মেয়ে দগ্ধ

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের ডাকা হরতালের সমর্থনে রাজধানীতে একটি মিছিল থেকে সিএনজি অটোরিকশায় ওপর পেট্টোলবোমা হামলা চালানো হয়েছে। এতে অটোরিকশার যাত্রী মা এবং তার দুই সন্তান দগ্ধ হয়েছে।

আগুনে দগ্ধ হয়েছেন মা সামসুন্নাহার বেগম (৫০), ছেলে তানজিমুল হক (২৫) এবং মেয়ে আনিকা আক্তার (১৮)। তাদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মিরপুরের শেওড়াপাড়ায় হরতাল সমর্থনকারীরা যাত্রীবাহী একটি সিএনজি অটোরিকশায় পেট্রোলবোমা নিক্ষেপ করলে তাতে আগুন ধরে যায়।

আহত তানজিমুল হক বলেন, মা এবং বোন নোয়াখালীর হাতিয়া থেকে ঢাকা এসেছেন ডাক্তার দেখাতে। মিরপুর-৭ নম্বরে বড় ভাইয়ের বাসায় উঠেছেন তারা। সেখান থেকে দুপুরের দিকে শান্তিনগরে ডাক্তারের সাক্ষাৎ শেষে সিএনজি অটোরিকশা যোগে মিরপুরে ফিরছিলেন। শেওড়াপাড়া ও কাজীপাড়ার মাঝখানে পৌঁছালে হরতালের সমর্থনে মিছিল থেকে অটোরিকশা লক্ষ্য করে পেট্রোলবোমা ছুড়ে মারা হয়। মুহূর্তেই আগুন ধরে যায়। ড্রাইভার দ্রুত নেমে দরজা খুলে দিতে দিতে তারা পুড়ে যায়। স্থানীয়রা পরে তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করায়।

তানজিমুল আরো জানান, তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্সে পড়ছেন।

বার্ন ইউনিটের চিকিৎসকরা জানান, তানজিমুলের শরীরের ১০ শতাংশ, সামসুন্নাহারের ১০ শতাংশ এবং আনিকার ১ শতাংশ পুড়ে গেছে।

এ ব্যাপারে পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউর রহমান জানান, এলাকাবাসীর ভাষ্যমতে হরতাল সমর্থনকারীরা সিএনজি অটোরিকশায় পেট্টোলবোমা মারলে তিনজন দগ্ধ হয়। তারা একই পরিবারের সদস্য বলে জানতে পেরেছেন। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করে দায়ীদের আইনের আওতায় আনার কথা বলেন তিনি।

গাজীপুরে বিএনপি সমাবেশ করতে না পারায় বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট সোমবার সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দেয়।

You Might Also Like