এডিবির সঙ্গে ৭২৪ কোটি টাকার ঋণ চুক্তি

এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) দেশের ঝুঁকিপূর্ণ আটটি উপকূলীয় পৌরসভার উন্নয়নে প্রায় ৭২৪ কোটি টাকা  ঋণ সহয়তা দেবে।  আজ রবিবার দুপুরে রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে  এনইসি’র সম্মেললন কক্ষে  সরকারের সঙ্গে এ সংক্রান্ত একটি ঋণ চুক্তি  সই  করেছে  এডিবি ।

বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে চুক্তিতে সই করেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) যুগ্ম-সচিব সাইফুদ্দিন আহমদ ও এডিবির পক্ষে চুক্তিতে সই করেন এডিবির ঢাকা  আবাসিক মিশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর কাজুহিকো হিগুচি।

বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের যুগ্ম-সচিব সাইফুদ্দিন আহমেদ এবং এডিবির পক্ষে বাংলাদেশের আবাসিক মিশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর কাজুহিকো হিগুচি চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

এডিবির সহজ শর্তের এডিএফ (এশিয়ান ডেভলাপমেন্ট ফান্ড) ঋণ ৫ বছরের গ্রেস পিরিয়ডসহ ২৫ বছরে পরিশোধযোগ্য এবং সুদের হার ২ শতাংশ। অন্যদিকে এসসিএফ (স্ট্র্যাটেজিক ক্লাইমেট ফান্ড) ঋণ ১০ বছরের গ্রেস পিরিয়ডসহ ৪০ বছরে পরিশোধযোগ্য এবং বার্ষিক সার্ভিস চার্জ শূন্য দশমিক ১ শতাংশ।

প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয় হবে ১১ কোটি ৭১ লাখ মার্কিন ডলার। এডিবির বাইরে বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের অনুদান এবং বাকি টাকা সরকারি তহবিল থেকে ব্যয় করা হবে

চুক্তি স্বাক্ষর শেষে অর্থেনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের যুগ্ম-সচিব সাইফুদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘২০৫০ সাল নাগাদ সমুদ্রের লেবেল কোন অবস্থায় যাবে সে অনুযায়ী পৌরসভাগুলোর অবকাঠামো উন্নয়ন করা হবে।’

স্থানীয় সরকার বিভাগ এ প্রকল্পের উদ্যোগী বিভাগ এবং স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর (এলজিইডি) লিড ইস্ককিউটিং এজেন্সি ও জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর (ডিপিএইচই) কো-ইস্ককিউটিং এজেন্সি হিসাবে দায়িত্ব পালন করবে। এ ছাড়া আমতলী, মঠবাড়িয়া, পিরোজপুর, বরগুনা, ভোলা, দৌলতখান এবং কলাপাড়া পৌরসভা এ প্রকল্পের ইমপ্লিমেনটিং এজেন্সি। প্রকল্পটির মেয়াদ ২০১৪ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২০ সালের মে মাস পর্যন্ত।

প্রকল্পটির উদ্দেশ্য হলো- ঝুঁকিপূর্ণ ৮টি উপকূলীয় পৌরসভার (মাঝারি শহরে) জলবায়ু পরিবর্তন সহিষ্ণুতা ও দুর্যোগ প্রস্তুতি শক্তিশালী করা, জলবায়ু পরিবর্তন সহিষ্ণু শহর অবকাঠামো উন্নয়ন করা, প্রাতিষ্ঠানিক সামর্থ্য ও স্থানীয় পরিচালন ব্যবস্থা জোরদার করা এবং জনসচেতনতা বৃদ্ধি করা।

You Might Also Like