পুতিন-ম্যাক্রোঁর প্রথম বৈঠক

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও ফ্রান্সের নতুন প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁর মধ্যে বৈঠক চলছে।

সোমবার প্যারিসের কাছে এ বৈঠকে কঠিন ভাষায় আলোচনার আগাম ঘোষণা দিয়েছেন ম্যাক্রোঁ। সিরিয়া ও ইউক্রেন ইস্যুতে রাশিয়ার অবস্থান নিয়ে কথা বলছেন তিনি।

সম্প্রতি ম্যাক্রোঁর নির্বাচনী প্রচারশিবির তাদের বিরুদ্ধে রাশিয়ার সাইবার হামলার অভিযোগ করে।

ইতালির সিসিলিতে সদ্য শেষ হওয়া জি-৭-এর শীর্ষ সম্মেলনে ম্যাক্রোঁ বলেন, ‘রাশিয়ার সঙ্গে কথা বলা খুবই জরুরি। কারণ এমন কতগুলো আন্তর্জাতিক ইস্যু রয়েছে, যা তাদের সঙ্গে কঠোর সংলাপে না বসলে মীমাংসা হবে না।’

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের বিরোধিতাকারী আরর সুন্নি ও কুর্দি বাহিনীর সমর্থনকারী জোটে রয়েছে ফ্রান্স। কিন্তু রাশিয়া বাশারকে সমর্থন করছে এবং সামরিক রসদ দিয়ে সাহায্য করছে।

এ ছাড়া ইউক্রেনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপের তীব্র সমালোচনা করে আসছে ফ্রান্স। ২০১৪ সালে ইউক্রেন থেকে ক্রিমিয়াকে বিচ্ছিন্ন করে রুশ ফেডারেশনে যুক্ত করায় মস্কোর বিরোধিতা করে প্যারিস। এ কারণে রাশিয়ার ওপর আরোপিত পশ্চিমা দেশগুলোর নিষেধাজ্ঞার সঙ্গেও রয়েছে ফ্রান্স।

প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ ক্ষমতায় থাকার সময় থেকে রাশিয়ার সঙ্গে ফ্রান্সের সম্পর্ক তলানিতে গিয়ে ঠেকে। সিরিয়া নিয়ে রাশিয়ার ওপর যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ আনায় গত বছর অক্টোবর মাসে ফ্রান্সে সফর বাতিল করেন পুতিন।

You Might Also Like