তামাকে কর বাড়ানোর দাবিতে চিকিৎসকদের সংহতি

কুমিল্লায় তামাকে কর বাড়ানোর দাবিতে চিকিৎসকদের সংহতি প্রকাশ শীর্ষক এক কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

রোববার ঢাকা আহছানিয়া মিশন কুমিল্লা টাউন হলের সামনে এ কর্মসূচির আয়োজন করে। মিশনের তামাক নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির প্রোগ্রাম অফিসার শারমীন রহমানের পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

কর্মসূচিতে চিকিৎসকরা ছাড়াও আহ্ছানিয়া মিশন পরিচালিত আরবান প্রাইমারি হেলথ কেয়ার সার্ভিস ডেলিভারি প্রকল্পের চিকিৎসক, গণমাধ্যম কর্মী এবং বেসরকারি সংগঠনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত থেকে দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেন।

কর্মসূচির মধ্য দিয়ে সিগারেটের মূল্যস্তরভিত্তিক কর-প্রথা বাতিল করে প্যাকেট প্রতি খুচরা মূল্যের কমপক্ষে ৭০ শতাংশ, বিড়ির ট্যারিফ ভ্যালু দিয়ে প্যাকেট প্রতি খুচরা মূল্যের ৫০ শতাংশ এবং গুল-জর্দার ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ পরিমান সুনির্দিষ্ট আবগারি শুল্ক (এক্সাইজ ট্যাক্স) বাড়ানোর দাবি জানানো হয়। এ ছাড়া তামাকের ওপর আরোপিত স্বাস্থ্য উন্নয়ন সারচার্জ ১ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ২ শতাংশ নির্ধারণ ও শিগগিরই তামাকের বিদ্যমান শুল্ক-কাঠামোর পরিবর্তে কার্যকর তামাক শুল্কনীতি প্রণয়ণের দাবি জানানো হয়।

কর্মসূচিতে কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন ডা. মুজিব রহমান, কুমিল্লা জেলা ফ্যামিলি প্লানিং- এর উপ-পরিচালক জনাব মো. মাহাবুবুল করিম, ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন পরিচালিত আরবান প্রইমারি হেলথ কেয়ার সার্ভিস ডেলিভারি প্রকল্পের প্রকল্প ব্যবস্থাপক মো: গোলাম রসুল এবং সূর্যের হাসি ক্লিনিক ম্যানেজার জনাব কাজী ইকরাম হোসেন এবং আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, তামাক ও তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার বাংলাদেশে জনস্বাস্থ্যের উন্নয়নের পথে বড় বাধা। আমাদের দেশে প্রতিরোধযোগ্য মৃত্যুর অন্যতম কারণ তামাকজাত পণ্যের ব্যবহার। গ্লোবাল এডাল্ট টোবাকো সার্ভের ২০০৯- এর তথ্য অনুসারে, বাংলাদেশে ৪৩ শতাংশ মানুষ তামাক সেবন করে। তামাতকজাত দ্রব্য ব্যবহারের কারণে প্রতিবছর বাংলাদেশে ১ লাখ মানুষ মারা যায় এবং ৩ লাখ ৭৮ হাজার মানুষ পঙ্গু হয়ে যায়। তাই তামাকের ক্ষতি রোধ করা খুব জরুরি। আশঙ্কার বিষয় হলো- বাংলাদেশে দিন দিন তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ছে।

কর্মসূচিতে আলোচকরা বলেন, তামাক নিয়ন্ত্রণ- এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কৌশলগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে তামাকের ওপর উচ্চ হারে কর বাড়ানোর মাধ্যমে তামাকের মূল্য বৃদ্ধি করা। তাহলে এটা জনগণের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে থাকবে।এ উদ্দেশ্যকে সামনে নিয়ে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন মাসব্যাপী তামাকজাত দ্রব্যের কর বাড়ানোর দাবিতে ‘চাইলে উন্নয়ন জনস্বাস্থ্যের, চাইলে দেশের সমৃদ্ধি, করতে হবে তামাকজাত দ্রব্যের কর বৃদ্ধি’’ এই স্লোগানে ক্যাম্পেইন পরিচালনা করছে।

You Might Also Like