পাকিস্তানের বিপক্ষেও আত্মপ্রত্যয়ী মাশরাফি

বৃষ্টি আর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচটি বাদ দিলে ওয়ালটন ত্রিদেশীয় সিরিজে দারুণ খেলেছে বাংলাদেশ। সেটার পুরস্কারও পেয়েছে হাতেনাতে। এবার চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে ভালো করার চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি টাইগাররা। তার আগে নিজেদের ঝালিয়ে নিতে মাঠে নামতে হচ্ছে তাদের। ১ জুন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ময়দানি লড়াইয়ে নামার আগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। তার প্রথমটি আগামীকাল শনিবার পাকিস্তানের বিপক্ষে। পাকিস্তানকে শক্তিশালী দল মানলেও তাদের বিপক্ষেও আত্মপ্রত্যয়ী মাশারফি বিন মুর্তজা।

ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘যদি আপনি কিছু করতে চান তাহলে সে দিনটি আপনার করে নিতে হবে। সামনে এগিয়ে যেতে হবে। পাকিস্তান বরাবরই ভালো দল। যখনই আমরা তাদের বিপক্ষে খেলেছি, তখনই তারা আমাদের চেয়ে শক্তিশালী দল ছিল। তবে এটা এমনই একটি টুর্নামেন্ট যেখানে বড় দলগুলো চাপের মধ্যে থাকবে। পাকিস্তান খুবই ভালো দল, যারা যেকোনো দলকে গুড়িয়ে দিতে পারে। চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে তাদের ভালো সুযোগ রয়েছে। তবে তাদের বিপক্ষেও আমাদের সুখস্মৃতি রয়েছে। আমরা আমাদের সেরাটা দিয়ে খেলব।’

বাংলাদেশ দলে এখন বেশ কয়েকজন তারকা বোলার রয়েছে। বাংলাদেশ এখন কেবল এক-দুইজন বোলারের উপর নির্ভর করে না। বিষয়টি স্বীকার করেছেন মাশরাফিও, ‘আমরা একজন বোলারের উপর নির্ভরশীলতার বিষয় নিয়ে উদ্বিগ্ন নই। কারণ আমাদের দলে বেশ কয়েকজন কোয়ালিটি বোলার রয়েছে। তবে মুস্তাফিজ গেল কয়েক বছর ধরে আমাদের জন্য অসাধারণ কিছু করে দেখিয়েছে। অস্ত্রোপচারের পর সে বেশ শক্তিশালীভাবে ফিরে এসেছে। আশা করছি সে আমাদের জন্য বিরাট ভূমিকা পালন করবে।’

বাংলাদেশের বোলিং ও ব্যাটিং প্রশংসনীয় হলেও কিছু কিছু ক্ষেত্রে ফিল্ডিংটা হতাশ করে সমর্থকদের। তবে মাশরাফি আশাবাদী সামনে ব্যাটিং ও বোলিংয়ের মতো ফিল্ডিংটাও ভালো হবে বাংলাদেশের, ‘নিজের খারাপ একটি দিনে আপনাকে সবকিছুতেই মনোযোগ দিতে হবে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আমাদের শেষ ম্যাচে চার-চারটি ক্যাচ ফেলেছি। বড় মঞ্চে এমনটি ঘটতে দেওয়া যাবে না। ব্যাটিং ও বোলিংয়ের মতো আমাদের ফিল্ডিংটাও ভালো হবে বলে আমরা আশাবাদী।’

You Might Also Like