নুসরাত-অঙ্কুশের প্রেমের টিপস

টলিউড অভিনয়শিল্পী নুসরাত জাহান ও অঙ্কুশ হাজরা। বর্তমান সময়ের আলোচিত এই জুটি বাংলাদেশেও বেশ পরিচিত মুখ। বিশেষ করে অঙ্কুশ বাংলাদেশের বেশ কটি সিনেমায় অভিনয় করেছেন।

এদিকে রবি কিনাগী পরিচালিত ‘আমি যে কে তোমার’ শিরোনামের সিনেমায় জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন নুসরাত-অঙ্কুশ। ১৯ মে মুক্তি পাবে সিনেমাটি।

এতে অঙ্কুশ একটি সংস্থার কর্ণধার। আর তার প্রতিষ্ঠানে চাকরির জন্য আসে নুসরাত। এরপর তাদের মধ্যে গড়ে উঠে প্রেমের সম্পর্ক। গল্পে এই সম্পর্ক শেষ পর্যন্ত টিকে থাকে। তবে এই সম্পর্ক অটুট রাখার বেশ কিছু কৌশল ব্যাখ্যা করেছেন এই জুটি।

এক. প্রেমের সম্পর্কে আবদ্ধ হওয়া মানেই একজন আরেকজনের সম্পত্তি এমনটা ভাবার কোনো কারণ নেই। কাউকে নিজের সম্পত্তি মনে না করলে অন্যায় আবদার করার প্রশ্নও ওঠে না। এ ক্ষেত্রে সম্পর্ক সুন্দরভাবে এগিয়ে যায়।

দুই. একে-অন্যের অতীত সম্পর্কে বেশি কিছু জানতে চাওয়া উচিত না। একজন স্বেচ্ছায় তার অতীত সম্পর্কে যতটুকু জানাতে চায়, ঠিক ততটুকু জানাই ভালো। প্রেমে বিশ্বাসই বড় কথা।

তিন. প্রেমিক যুগলের মধ্যে একজনের শান্ত হওয়া উচিৎ। অল্পতে দুজনই রেগে গেলে সমস্যা বাড়ে। এজন্য ঝগড়ার সময় একজনকে চুপ থাকতে হয়। চুপ থাকলে কিছুক্ষণ পর অপরজনেরও রাগ কমে যাবে।

চার. প্রেমের সম্পর্কে ঘনিষ্ঠ হতে চাইলে, যদি আপনার পার্টনার বাধা দেয় তবে এমনটা ভাবার কারণ নেই যে, তিনি অন্য কারো সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন। বরং আপনার জীবনসঙ্গীর যে কোনো সিদ্ধান্ত সম্মান করুন।

পাঁচ. কোনো সম্পর্কে বেশি প্রত্যাশা করা উচিত নয়। প্রিয় মানুষটির কাছে কিছু প্রত্যাশা করলে তা থেকে যদি এদিক ওদিক হয় তবে মনে হয় প্রেমিক বা প্রেমিকা বদলে গেছেন। এই ভাবনা মোটেই ঠিক না। এর চেয়ে কোনো প্রত্যাশা না করে দেখুন সম্পর্ক সুন্দরভাবে এগিয়ে যাবে।

You Might Also Like