মেয়ের হত্যার তদন্তকারীকে হত্যা

মেক্সিকোতে নিজের সন্তানের হত্যাকারীকে তদন্তের পর পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া এক নারীকে হত্যা করা হয়েছে। ওই নারী বিভিন্ন সময় নিখোঁজ হওয়া যাওয়া মানুষদের খোঁজ পেতে ৬০০ পরিবারের একটি গ্রুপের নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন।

বিবিসি জানিয়েছে, মিরিয়াম রদ্রিগুয়েজ মার্টিনেজ নামের ওই নারীকে টামাউলিপাস রাজ্যের সান ফার্দিনান্দো শহরে তার নিজ বাসায় গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

২০১২ সালে হঠাৎ করেই নিখোঁজ হয় মার্টিনেজের কন্যা। পুলিশের কাছ থেকে সহায়তা না পেয়ে তিনি নিজেই খোঁজ শুরু করেন। পরে একটি গোপন কবর থেকে মেয়ের লাশের সন্ধান পান মার্টিনেজ। অনুসন্ধানের মাধ্যমে তিনি জানতে পারেন, জেটাস নামের একটি মাদক ব্যবসায়ী গ্রুপের সদস্যরা তার মেয়েকে হত্যা করেছে। পরে তিনি তথ্যপ্রমাণগুলো পুলিশের হাতে তুলে দিলে হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও কারাদণ্ড হয়। গত মার্চে এক আসামি জেল থেকে পালিয়ে যায়। এরপর থেকেই একের পর এক হুমকি পেয়ে আসছিলেন মার্টিনেজ। তিনি পুলিশের কাছে নিরাপত্তার আবেদন জানালেও তা উপেক্ষা করা হয় বলে জানিয়েছেন মার্টিনেজের সহকর্মীরা।

২০১২ সালের পর মার্টিনেজ নিখোঁজ ব্যক্তিদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে একটি সংগঠন খোলেন। তারা নিখোঁজদের খুঁজে পেতে নিজেরাই অনুসন্ধান করতেন। জেটাস গ্যাংয়ের সদস্যরা মার্টিনেজের স্বামীকে অপহরণের চেষ্টা করলে তিনি তাও ভন্ডুল করে দিয়েছিলেন। ২০১৪ সালে মেক্সিকোর একটি শহর থেকে একসঙ্গে ৪৩ শিক্ষার্থী ও শিক্ষক নিখোঁজ হলে মার্টিনেজের গ্রুপের সদস্য সংখ্যা বেড়ে যায়। বর্তমানে দেশটির ১৩ শহরে তার গ্রুপ কাজ করছে।

You Might Also Like