২ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ধর্ষণ: শাফাত ৬ দিন ও সাকিফ ৫ দিনের রিমান্ডে

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার বনানীর একটি হোটেলে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলায় গ্রেপ্তার শাফাত আহমেদকে ৬ দিনের এবং সাদমান সাকিফকে ৫ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

আজ (শুক্রবার) বেলা তিনটার দিকে এই দুজনকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এরপর পুলিশের পক্ষ থেকে ১০ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়। আর জামিন আবেদন করেন আসামিপক্ষের আইনজীবী আবদুর রহমান হাওলাদার। শুনানি শেষে মহানগর হাকিম রায়হান উল ইসলাম শাফাতকে ৬ দিনের ও সাদমানকে ৫ দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।

ধর্ষণের মামলায় গতকাল (বৃহস্পতিবার) রাতে সিলেটে গ্রেপ্তার হন শাফাত ও সাদমান। পুলিশ সদর দপ্তরের একটি বিশেষ দল রাত নয়টার দিকে জালালাবাদের একটি বাড়ি থেকে দুজনকে গ্রেপ্তার করে। বাড়িটিতে লুকিয়ে ছিলো তারা। সেখান থেকে সকালে তাদের ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) কার্যালয়ে আনা হয়। এরপর শাফাত ও সাকিফকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে নেয় পুলিশ।

এর আগে, শুক্রবার দুপুরে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার কৃষ্ণপদ রায় জানান, প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা মিলেছে। তবে সবকিছু খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ঘটনাটি তদন্তে একটি তদন্ত সহায়ক কমিটি করা হয়েছে। বিলম্বে রুজু হওয়ার পরও মামলা যেন সঠিক পথে এগোয়, আমরা যেন তথ্যপ্রমাণসহ আদালতে প্রতিবেদন পেশ করতে পারি। সে লক্ষ্যে ডিএমপি কমিশনারের নির্দেশে এই তদন্ত সহায়ক কমিটি করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এই মামলার তদন্ত একটি মডেল তদন্ত হয়ে থাকবে। বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে যে ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছে, সেটা আর থাকবে না। দেশবাসীর মনে যে সন্দেহের সৃষ্টি হয়েছে, সেটা দূর হবে। পুলিশ সব অনুরাগ-বিরাগের ঊর্ধ্বে ওঠে কাজ করছে এবং করবে। সাফাত-সাকিফকে গ্রেপ্তার করা হলেও অভিযান শেষ হয়নি। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে বলেও জানান কৃষ্ণপদ রায়।

এদিকে, এ ঘটনায় আসামী শাফাত আহমেদ ও তার বাবা আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের যাবতীয় ব্যাংক হিসাব তলব করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। গতকাল (বৃহস্পতিবার) রাতে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর থেকে দিলদার ও শাফাত আহমেদের ব্যাংক হিসাব চেয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। এই দুজনের পাশাপাশি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান হিসেবে আপন জুয়েলার্সেরও ব্যাংক হিসাব তলব করা হয়েছে।

গত ৬ মে বনানী থানায় পাঁচজনকে আসামি করে একটি ধর্ষণ মামলা করেন ধর্ষণের শিকার হওয়া বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী। জন্মদিনের পার্টির নাম করে বনানীর রেইনট্রি হোটেলের দুটি কক্ষে আটকে রেখে রাতভর তাদের ধর্ষণ করার অভিযোগ করেন তারা। এ মামলার আসামিরা হলেন শাফাত আহমেদ, নাঈম আশরাফ, সাদমান সাকিফ, শাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ও তার দেহরক্ষী আবুল কালাম আজাদ।

You Might Also Like