রাষ্ট্রের কোনো ধর্ম থাকতে পারে না : প্রধান বিচারপতি

রাষ্ট্রের কোনো ধর্ম থাকতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা।

বুধবার সন্ধ্যায় বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে রাজধানীর বাসাবো ধর্মরাজিক মহাবিহার অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘ধর্মকে দেশের মধ্যে সীমাবদ্ধ করে রাখতে চাই না। ধর্ম মানুষের কল্যাণের জন্য। আমি প্রত্যেক ধর্মকে সম্মান করি। ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার, রাষ্ট্রের কোনো ধর্ম থাকতে পারে না। ধর্ম মানবতার।’

বিচারপতি এস কে সিনহা বলেন, ‘সব মানুষের রক্তই লাল। তাহলে কেন সংঘাত। আজকে কেন ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি করি। প্রতিটি ধর্মই শান্তির কথা বলে। তবে আমাদের মধ্যে কিছু স্বার্থান্বেষী মহল ধর্মের অপব্যাখ্যা করছে। তাদের কারণেই পৃথিবীতে এত সংঘাত হানাহানি। আমি সবাইকে আহ্বান জানাই, আপনারা যার যার ধর্মের বাণী প্রচার করুন। যারা বিপথে গেছে তাদেরকে বোঝান।’

তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশ একটি ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র। তা বোঝা যায়, আজকে সরকারি ছুটি ঘোষণা করায়। একইভাবে আমাদের দুর্গাপূজায়ও ছুটি ঘোষণা করা হয়। আমাদের অনুষ্ঠানে যেমন মুসলমানসহ সব ধর্মে মানুষেরা আসে। আমরাও তাদের ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যাই।’

বাংলাদেশ বুদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের সভাপতি শুদ্ধানন্দ মহাথেরর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রামকৃঞ্চ মিশনের অধ্যক্ষ স্বামী ধ্রুবেশানন্দজী মহারাজ, নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ফাদার বেঞ্জামিন কস্তা, আওয়ামী লীগ নেতা নূহ আলম লেলিনসহ চীন, ভারত, শ্র্রীলঙ্কা ও ভিয়েতনামের কূটনৈতিক কোরের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

You Might Also Like