রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা নষ্টে সু চির বিরুদ্ধে গুজব ছড়ানোর অভিযোগ

মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) নেত্রী অং সান সু চি সম্পর্কে গুজব ছড়িয়ে দেশে ‘রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা’ নষ্ট করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জনগণকে সতর্ক করেছে দেশটির সরকার। শুক্রবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ‘মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট থিন কিয়াও পদত্যাগ করবেন এবং সু চি সরকার প্রধান হবেন’শিরোণামে একটি খবর দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে।

রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম গ্লোবাল নিউ লাইট অব মিয়ানমার শুক্রবার সু চির কার্যালয়ের বরাত দিতে বলেছে, ‘ভুয়া নাম ব্যবহার করে করা অ্যাকাউন্ট থেকে প্রেসিডেন্ট এবং স্টেট কাউন্সিলরকে (সু চি) নিয়ে মিথ্যা খবর ছড়ানো হচ্ছে।’

প্রসঙ্গত, স্বামী বিদেশি হওয়ায় সাংবিধানিক বাধার কারণে সু চি প্রেসিডেন্ট হতে পারেননি। তাই দলের অন্যতম নেতা থিন কিয়াওকে প্রেসিডেন্ট করেন সুচি। আর সু চির জন্য প্রেসিডেন্টের সমক্ষমতা সম্পন্ন নতুন একটি পদ (স্টেট কাউন্সিলর) সৃষ্টি করা হয়।

সু চির কার্যালয় থেকে বলা হয়েছে, ‘বর্তমান সরকারের আমলে দেশে বিরাজমান রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা নষ্ট করতে ইচ্ছাকৃতভাবে এ কাজ করা হচ্ছে। এ খবর ছড়িয়ে অপরাধীরা জনমনে এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে চায় যাতে তার ভীত ও উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে।’

পুলিশ জানিয়েছে, গুজব ছড়ানোর পেছনে যাদের হাত রয়েছে তাদেরকে বিচারের আওতায় আনা হবে।

You Might Also Like