টঙ্গীতে পুলিশ পরিচয়ে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ

টঙ্গী আরিচপুর এলাকায় পুলিশ পরিচয়ে এক স্কুল ছাত্রীকে (১৬) ধর্ষণ করেছে এক লম্পট। এ ঘটনায় ছাত্রীর মা ধর্ষক মো. হামিম তালুকদারের বিরুদ্ধে টঙ্গী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবত পুলিশ পরিচয়দানকারী মো. হামিম তালুকদার স্কুল পড়ুয়া ওই ছাত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলেন। গত ১৭ এপ্রিল সন্ধ্যায় ওই ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে টঙ্গী বাজার অনামিকা নামক একটি আবাসিক হোটেলে ডেকে নিয়ে জোরপুর্বক ধর্ষণ করে হামিম। ওই দিনই ছাত্রীকে হোটেলে রেখে সে পালিয়ে যায়। ঘটনাটি জানাজানির পর ছাত্রীর বাবা-মা ও আত্মীয় স্বজনরা হামিমের মুঠো ফোনের মাধ্যমে বিয়ে না করার কারণ জানতে চাইলে তাদেরকে বিভিন্নভাবে হুমকি-ধামকি ও ভয়ভীতি দেখায়।

ছাত্রীর মা রাবেয়া জানান, হামিম নাকি আরিচপুর এলাকায় কোন একটি স্কুলে শিক্ষকতা করতো। তবে কোন স্কুলের শিক্ষক ছিলো তা জানিনা। আমার মেয়েকে বিয়ে করবে এমন কথা সে বলে বেড়াতো। ঘটনার দিন বিকেলে মেয়েকে ঘুরতে নিয়ে যাবে বলে ঘর থেকে বের হয়। পরে ঘটনাটি জানতে পেরে হামিমের মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে সে আমাদের বিভিন্ন রকম ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদান করে।
টঙ্গী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মো. হাসানুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সে শিক্ষক কিনা পুলিশ তা এখনো বলতে পারবো না। তবে তদন্তের পর বলা যাবে সে আসলে কি।

You Might Also Like