কাশ্মিরে আইন-শৃঙ্খলার অবনতি, অনন্তনাগ কেন্দ্রের উপ-নির্বাচন ফের স্থগিত

জম্মু-কাশ্মিরে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অনুকূলে না থাকায় সেখানকার অনন্তনাগ লোকসভা কেন্দ্রের উপ-নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেছে ভারতের নির্বাচন কমিশন।

এ নিয়ে দু’বার ওই কেন্দ্রের নির্বাচন স্থগিত করা হল। প্রথমে ১২ এপ্রিল এবং পরে ২৫ মে ওই কেন্দ্রের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু রাজ্যের পরিস্থিতি অবাধ ভোটের অনুকূল নয় এবং নিরাপত্তা কর্মীর সংখ্যা অপ্রতুলতার জন্য ওই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে।

নির্বাচন কমিশন এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি বাতিল করে দিয়েছে। পরবর্তীতে ওই কেন্দ্রের নির্বাচনের দিন ঘোষণা হবে। উপ-নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে ৭৪ হাজার বা ৭৪৭ কোম্পানি আধাসামরিক বাহিনী চাইলেও মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে তা দিতে অস্বীকার করা হয়। এত কম সময়ের মধ্যে এত বেশিসংখ্যক বাহিনী মোতায়েন করা সম্ভব নয় বলে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

এ যাবত কেনো সংসদীয় কেন্দ্রের নির্বাচনের জন্য কেন্দ্রীয় সরকার ১০ কোম্পানি বা ১ হাজার নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করে আসছে। তাছাড়া ৫ রাজ্যে সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনের সময় ৭০ হাজার নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করা হয়।

গত ৯ এপ্রিল শ্রীনগর লোকসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের সময় নিরাপত্তা বাহিনী এবং বিক্ষোভকারীদের মধ্যে সংঘর্ষে ৮ বিক্ষোভকারী নিহত হয় এবং মাত্র ৭ শতাংশ ভোট পড়ে।

ওই ঘটনার কথা মাথায় রেখে অনন্তনাগ কেন্দ্রের উপনির্বাচন ১২ এপ্রিল হওয়ার কথা থাকলেও নির্বাচন কমিশন তা স্থগিত করে দেয়। এমনকি নির্বাচন স্থগিত করা না হলে ক্ষমতাসীন পিডিপি দলের পক্ষ থেকে তাদের প্রার্থী প্রত্যাহার করার হুমকি দেয়া হয়। এর পরে নির্বাচন কমিশন ২৫ মে পরবর্তী নির্বাচন হবে বলে ঘোষণা দেয়।

কমিশনের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে ১২ মে’র মধ্যে ৭৪ হাজার নিরাপত্তাবাহিনী মোতায়েন করার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে বলা হয়। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার এত কম সময়ের মধ্যে কমিশনের ওই দাবি মানা সম্ভব নয় বলে জানায়। তারা স্রেফ ৩০ হাজার নিরাপত্তা বাহিনী পাঠাতে পারবে বলে বলা হয়। এরপরেই গতকাল রাতে নির্বাচন কমিশন পুনরায় ওই কেন্দ্রের নির্বাচন স্থগিত করার ঘোষণা দেয়।#

পার্সটুডে

You Might Also Like