অর্থাভাব: থমকে গেছে ভারতীয় নৌবাহিনীর আধুনিকায়ন কর্মসূচি

ভারতীয় নৌবাহিনী আধুনিকায়নের দীর্ঘমেয়াদি প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যর্থ হবে। অর্থাভাব এবং প্রকল্প বাস্তবায়নে দীর্ঘসূত্রিতার কারণে এমনটি হবে বলে নৌবাহিনীর কর্মকর্তা এবং নয়াদিল্লির প্রতিরক্ষা বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন।

ভারতীয় নৌবাহিনীর ১৫ বছর মেয়াদি প্রকল্পের জন্য ১২৩ বিলিয়ন ডলার সম পরিমাণ অর্থ প্রয়োজন। চলতি বছরে এ খাতে ৮.৩ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দের প্রয়োজন থাকলেও বরাদ্দ হয়েছে মাত্র ৩ বিলিয়ন ডলার। এ অর্থের ৯৫ শতাংশই অতীতের চুক্তি খাতে দেয়ার অঙ্গীকার করা হয়েছে। ফলে আধুনিকায়নের নতুন প্রকল্পের খাতের জন্য থাকছে মাত্র ১৫ কোটি ৩০ লাখ ডলার। কাজেই ভারতীয় নৌবাহিনী কোনো ভাবেই আধুনিকায়নের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে পারবে না।

ভারত মহাসাগর অঞ্চলে চীন যখন অধিক হারে ডুবোজাহাজ এবং বিমানবাহী রণতরী মোতায়েন করছে তখন এ উদ্বেগের মুখে পড়ল ভারতীয় নৌবাহিনী।

ভারতীয় নৌবাহিনী ২০২৭ সালের মধ্যে ১৯৮টি যুদ্ধজাহাজ সংগ্রহের পরিকল্পনা করেছিল। এর মধ্যে ১২০টি হবে বিমানবাহী জাহাজ, ডেস্ট্রয়ার, ফ্রিগেট এবং ডুবোজাহাজের মতো ‘বড় ধরণের রণতরী।’ এ চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে ভারত এ পর্যন্ত ১৪০টি জাহাজ সংগ্রহ করেছে। এগুলোর অর্ধেকও ‘বড় ধরণের রণতরী’ নয়।

এ ছাড়া, নেটওয়ার্ক সিস্টেম এবং লক্ষ্যবস্তুর দিকে সুনির্দিষ্ট ভাবে পরিচালনা যোগ্য গোলার মতো অত্যাধুনিক ব্যবস্থার প্রচলন ঘটাতে যেয়েও হিমসিম খাচ্ছে ভারতীয় নৌবাহিনী।

ভারতীয় নৌবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত অ্যাডমিরাল অরুণ প্রাকেশ বলেন, ভারতীয় নৌ নিরাপত্তার বিষয়টি অত্যন্ত ব্যাপক এখানে জোড়াতালি দিয়ে কাজ চালানোর বদলে নেতৃবৃন্দের পূর্ণ মনোযোগ দেয়ার প্রয়োজন রয়েছে।

You Might Also Like