তুরস্কে গণভোট : সামান্য ব্যবধানে এগিয়ে এরদোয়ান শিবির

তুরস্কে সরকার ব্যবস্থা পরিবর্তন নিয়ে গণভোটে ভোট গ্রহণ শেষে প্রকাশিত ফলাফলে সামান্য ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে এরদোয়ান শিবির।

গণভোটে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের শিবির জয়ী হলে তার হাতে দেশের ক্ষমতা কুক্ষিগত হবে। রাষ্ট্রপতিশাসিত প্রজাতন্ত্রে বদলে যাবে তুরস্ক। আর এর মধ্য দিয়ে চাইলে ২০২৯ সাল পর্যন্ত নির্দ্বিধায় ক্ষমতায় থাকতে পারবেন তিনি।

সংসদীয় সরকার ব্যবস্থা পরিবর্তন করে রাষ্ট্রপতিশাসিত সরকার ব্যবস্থা প্রবর্তন করতে সংবিধান সংশোধন করা হবে কি না- এ প্রশ্নের ওপর রোববার দিনভর ‘হ্যাঁ’ ও ‘না’ ভোট গৃহীত হয়। বিদেশে থাকা তুর্কিরা অনলাইনে ভোট দিয়েছেন।

তুরস্কের বার্তাসংস্থা আনাদোলুর দেওয়া সবশেষ খবর মতে, গৃহীত ভোটের ৯৭ শতাংশের গণনা শেষে দেখা যাচ্ছে, হ্যাঁ-ভোট পড়েছে ৫১ দশমিক ৪৪ শতাংশ এবং না-ভোট পড়েছে ৪৮ দশমিক ৪৭ শতাংশ। হাড্ডাহাড্ডি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ এই ভোটে শেষ পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের পক্ষের হ্যাঁ-ভোট জয়ী হতে যাচ্ছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এরদোয়ানের সমর্থকরা দাবি করছেন, সংসদীয় সরকার ব্যবস্থার বদলে নির্বাহী ক্ষমতার অধিকারী রাষ্ট্রপতিশাসিত সরকার প্রবর্তিত হলে দেশের জন্য ভালো হবে। তবে বিরোধীদের দাবি, এর মাধ্যমে কর্তৃত্ববাদ আরো পোক্ত ও প্রতিষ্ঠিত হবে।

হ্যাঁ-ভোট জিতলে আগামী ২০২৯ সাল পর্যন্ত তুরস্কের প্রেসিডেন্ট পদে আসীন থাকবেন এরদোয়ান।

এদিকে, তুরস্কের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় দিয়ারবাকির প্রদেশে একটি ভোটকেন্দ্রে সহিংসতায় নিহত হয়েছেন তিনজন।

গণভোটে বৈধ ভোটার সংখ্যা প্রায় ৫ কোটি ৫০ লাখ। ১ লাখ ৬৭ হাজার ভোটকেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হয়েছে।

You Might Also Like