বৈশাখী চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে অপশক্তিকে পরাজিত করতে হবে : ওবায়দুল কাদের

বৈশাখী চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে দলমত নির্বিশেষে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদসহ দেশ বিরোধী অপশক্তিকে পরাজিত করার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। আজ (শুক্রবার) সকালে রাজধানীর ধানমন্ডির কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে এ আহবান জানান তিনি।

বিএনপি সাম্প্রদায়িক শক্তিকে মদদ দিচ্ছে- এমন অভিযোগ করে সাধারণ সম্পাদক বলেন, দলটির মদদেই এ শক্তিগুলো বৈশাখী উদযাপনে বাধা দেয়ার হুমকি দিচ্ছে। নতুন বছরে বৈশাখী চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে অপশক্তিকে পরাজিত করতে হবে।

জনভোগান্তির কথা চিন্তা করেই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে পহেলা বৈশাখে আওয়ামী লীগের সব কর্মসূচি স্থগিত করা হয় জানিয়ে তিনি বলেন, মঙ্গল শোভাযাত্রা কিংবা পহেলা বৈশাখের সঙ্গে ধর্মের কোনো বিরোধ নেই। সুতরাং এ নিয়ে বিভ্রান্তির কোনো সুযোগ নেই। জনস্বার্থের কথা চিন্তা করেই দলের সব কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে।

‘ধর্ম নিয়ে আওয়ামী লীগ নয়, বিএনপি রাজনীতি করে’- এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, তারা যদি ধর্মীয় অপশক্তিকে মদদ না দিতো, পৃষ্ঠপোষকতা না করতো তাহলে আজকে সাম্প্রদায়িকতার বিষবৃক্ষের এত ডালপালা বিস্তার হতো না।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, শিক্ষা ব্যবস্থাকে মূল কাঠামোর মধ্যে আনার জন্যই কওমি মাদরাসাকে সরকারি স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। এ নিয়ে হেফাজতে ইসলামের সঙ্গে জোট হয়েছে বলে কেউ কেউ বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে।

এদিকে, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, বাংলা নববর্ষ একটি সার্বজনীন উৎসব। এরসঙ্গে ধর্মের কোনো সম্পর্ক নেই, বিরোধ নেই। পহেলা বৈশাখ, মঙ্গল শোভাযাত্রা, এটা বাঙালি সংস্কৃতির অংশ। এটা মুসলিম বা হিন্দু কারো ধর্মীয় অনুষ্ঠান নয়। তবে নববর্ষের এ আয়োজন ‘তেঁতুল হুজুরদের’ বিরুদ্ধে প্রতিবাদ।

আজ (শুক্রবার) সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) আয়োজিত পহেলা বৈশাখ ১৪২৪ বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলা নববর্ষ পালন আমাদের ইতিহাস ঐতিহ্যের সঙ্গে জড়িয়ে আছে। নববর্ষ উদযাপন করলে, মঙ্গল শোভাযাত্রা করলে মুসলমানিত্বও যায় না, হিন্দুত্বও যায় না। এটি ধর্ম, বর্ণ, জাত-পাত নির্বিশেষে পালন করতে পারে।

You Might Also Like