দিবালার জোড়া গোলে উড়ে গেল বার্সা

চ্যাম্পিয়নস লিগে ২০১৪-১৫ মৌসুমের ফাইনালে জুভেন্টাসকে কাঁদিয়ে শিরোপা ঘরে তুলেছিল বার্সেলোনা। ইউরোপ সেরার এ প্রতিযোগিতায় গতকাল ঘরের মাঠে সেই জুভেন্টাস স্টেডিয়ামেই বার্সাকে হারিয়েছে জুভেন্টাস। ম্যাচটি কোয়ার্টার ফাইনালের হলেও বার্সাকে হারিয়ে পুরণো ক্ষতে কিছুটা হলেও মলম লেপন করতে পেরেছে স্বাগতিক জুভেন্টাস।

কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে বার্সেলোনাকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে জুভেন্টাস। বার্সা শিবিরের সেরা তারকা লিওনেল মেসি জ্বলে উঠতে না পারলেও ফুটবল দুনিয়ায় আর্জেন্টাইন তারকা পাওলো দিবালা যাকে ‘নুতন মেসি’ হিসেবে চেনে তার গোলেই হারল বার্সা।

বার্সাকে বিপদে ফেলতে জোড়া গোল তুলে নেন দিবালা। জুভিদের হয়ে বাকি গোলটি করেন জর্জো চিয়েল্লোনি। চেনা মাঠে খেলার শুরু থেকেই গতকাল রাতে আক্রমণাত্মক মেজাজে দেখা গেছে জুভেন্টাসকে। মুহুর্মুহু আক্রমনে ম্যাচের ৭ মিনিটেই এগিয়ে যায় টানা পাঁচ বারের সিরি’আ চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস। ডান দিকে হুয়ান কুয়াদ্রাদোরে পাস ধরে ডি বক্সে ডান পায়ের বাঁকানো শটে বার্সেলোনার জাল কাঁপান দিবালা।
ম্যাচের ২১ মিনিটে বার্সা সুপারস্টার মেসির দুর্দান্ত একটি প্রচেষ্টা রুখে দেন জুভেন্টাসের অভিজ্ঞ গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফন। কিন্তু এর এক মিনিট পরই বার্সা সমর্থকদের আবারও স্তব্দ করে দেন আর্জেন্টাইন নুতন সেনসেশন ‍দিবালা। এ সময় মারিও-মানজুকিচের কাছ থেকে পাওয়া বল নিয়ে জেরার্ড পিকেকে ফাঁকি দিয়ে জুভেন্টাসকে ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে দেন দিবালা। এ ব্যবধানে পিছিয়ে থেকেই বিশ্রামে যায় মেসি-নেইমাররা।

বিশ্রাম শেষে দ্বিতীয়ার্ধের ৫৫ মিনিটে জর্জো চিয়েল্লোনির গোলে ম্যাচ থেকে আরও ছিটকে পড়ে যায় বার্সেলোনা। দুর্দান্ত এক হেডে বার্সার জালে বল পাঠান ইতালিয়ান এ তারকা। বাকি সময়ে স্বাগতিকদের শক্তিশালী রক্ষণ দেয়ালের কাছে বারবার ব্যর্থ হতে হয়েছে মেসি-নেইমার-সুয়ারেজদের। শেষপর্যন্ত আর গোল না হওয়ায় ৩-০ ব্যবধানের হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে লুইস এনরিকের বার্সাকে।

চ্যাম্পিয়নস লিগের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে কোয়ার্টার ফাইনালের ফিরতি লেগে ঘরের মাঠে পাহাড় ডিঙাতে হবে বার্সাকে। জুভেন্টাসের বিপক্ষে ঘরের মাঠে ৪ গোলের ব্যবধান গড়ে জিততে হবে তাদের। কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার পথে ক্যাম্প ন্যুতে পিএসজির বিপক্ষে ইতিহাস গড়ে জিতেছে কাতালান ক্লাবটি। এবার সেমির টিকিট পেতেও তাদের কাছে এমন নাটকীয় কিছু দেখার প্রত্যয়ে রয়েছে বার্সেলোনা ভক্তরা।

You Might Also Like