চামড়া শিল্প : ১৫ দিনে সাভারে গ্যাস-বিদ্যুৎ-পানির দাবি

আগামী ১৫ দিনের মধ্যে সাভার বিসিক চামড়া শিল্প নগরীতে গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির সংযোগ দেওয়ার দাবি জানিয়েছে চামড়া রপ্তানি শিল্প ঐক্য পরিষদ।

তা না হলে হাজারীবাগে ট্যানারিতে কাজ করতে দেওয়ার দাবি জানিয়েছে তারা। পাশাপাশি ট্যানারি শিল্প নিয়ে আদালতের রায় কার্যকর না হলে বিসিক অফিস ঘেরাওয়ের হুঁশিয়ারি দেয় পরিষদ।

সোমবার দুপুরে হাজারীবাগে চামড়া রপ্তানি শিল্প ঐক্য পরিষদ আয়োজিত এক মহাসমাবেশে এ হুঁশিয়ারি দেন বাংলা‌দেশ ট্যানারি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শাহীন আহমেদ।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ফিনিশড লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোটার্স অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ মাহিন, অ্যাসোসিয়েশনের সহসভাপতি দিল জান ভূইয়াসহ চামড়া শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট নেতা-কর্মীরা।

শাহীন আহমেদ জানান, হাজারীবাগ থেকে ট্যানারি শিল্প স্থানান্তরের প্রতিবাদে আগামী ১২ এপ্রিল হাজারীবাগ ট্যানারি মোড় থেকে কালো পতাকা মিছিল করবেন ট্যানারি মালিকরা। ১৫ এপ্রিল চামড়া শিল্প সংশ্লিষ্ট সকল সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় করা হবে।

তিনি আরো বলেন, হাজারীবাগের ট্যানারি ভবনগুলোর গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়ার ফলে ভবনগুলোতে যেসব শ্রমিক বসবাস করছেন তারা এখন মানবেতর জীবনযাপন করছেন। তারা রান্না পর্যন্ত করতে পারছেন না।

এদিকে সাভারে নতুন ট্যানারি নগরীতে অবিলম্বে গ্যাস-বিদ্যুৎ ও পানি সংযোগসহ শ্রমিকদের আবাসন ব্যবস্থা নিশ্চিত করার দাবিও জানান তিনি।

এ ছাড়া সভায় মোট নয়টি দাবি জানিয়েছে চামড়া রপ্তানি শিল্প ঐক্য পরিষদ। এগুলো হলো- ২০০৩ সালে সম্পাদিত সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী শিল্প নগরীর প্লটের মালিকানা দলিল দ্রুত রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করা, শিল্প নগরীতে আন্তর্জাতিক মানের সিইটিপি, ক্রোম রিকভারি ইউনিট ডাম্পিং ইয়ার্ড নির্মাণ, সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী ১৫ দিনের মধ্যে শিল্প নগরীতে গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি সংযোগ নিশ্চিত করা, শ্রমিকদের আবাসন, সেক্টর সংশ্লিষ্ট সংগঠনসমূহের পুনর্বাসনের লক্ষ্যে বরাদ্দসহ প্লট না পাওয়া উদ্যোক্তাদের প্লট বরাদ্দ দেওয়া, কারখানা বন্ধ থাকাকালীন শ্রমিক কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধের জন্য মালিকদেরকে সরকারের পক্ষ থেকে এককালীন অর্থ বরাদ্দ দেওয়া, কারখানার উৎপাদন বন্ধের ফলে যে সকল রপ্তানি আদেশ বাতিল হবে এবং ক্রেতাগণ ক্ষতিপূরণ দাবি করবেন সেই অর্থ সরকারকে পরিশোধ করতে হবে, বিসিকের অব্যবস্থাপনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত করা, শিল্প উদ্যোক্তাদের বিদ্যমান ঋণ ব্লক করা এবং সুদ মওকুফ করা, হাজারীবাগের জমিতে ডিজাইন প্ল্যান পাশের ওপর রাজউক কর্তৃক আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা।

You Might Also Like