যে কারণে পতন হতে পারে ট্রাম্পের

শুরু হতে না হতেই কি শেষ হয়ে যাবে দোর্দণ্ড প্রতাপে হোয়াইট হাউসের সিংহাসনে অধিষ্ঠানকারী ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্বপ্নের প্রশাসন? পতন হতে যাচ্ছে কি তার?

বিতর্কিত মন্তব্য আর একগুঁয়ে নীতি নিয়ে দুনিয়া কাঁপিয়ে যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তার বিরুদ্ধে বড় বড় বিক্ষোভ-সমাবেশ হচ্ছে। ফলে বিশ্ববাসীর মনে প্রশ্নে এসে গেছে, ট্রাম্পকে ক্ষমতা থেকে নামানোর কোনো পথ কি নেই?

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থার (এনএসএ) প্রাক্তন বিশ্লেষক দাবি করছেন, হ্যাঁ, পতন ঘটতে পারে ট্রাম্পের। রাশিয়ার সঙ্গে ট্রাম্প প্রশাসনের অবৈধ সম্পর্ক নিয়ে যে তদন্ত চলছে, এর মাধ্যমেই শেষ হতে পারে ট্রাম্পের ক্ষমতা। ক্ষমতা ছেড়ে দিতে বাধ্য হতে পারেন তিনি।

নিরাপত্তা বিশ্লেষক ও প্রাক্তন গোয়েন্দা কর্মকর্তা জন শিন্ডলার মনে করছেন, ‘প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করার জন্য তার টিম রাশিয়ার সঙ্গে আঁতাত করেছিল- তদন্তে এমন তথ্য পাওয়া গেলে এবং এতে ট্রাম্প অভিযুক্ত হলে এর ফলে তার ক্ষমতার ইতি ঘটতে পারে।’

সিবিসি রেডিওর সঙ্গে কথা বলার সময় শিন্ডলার বলেন, ‘তার (ট্রাম্প) লোকজন ছাড়া প্রেসিডেন্ট নিজে যদি এই অভিযোগে অভিযুক্ত হন, তখন এটি হবে পরিবর্তন এনে দেওয়ার মতো ঘটনা। তিনি চান বা না চান, এর দায়ে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেওয়া হতে পারে তাকে।’

শিন্ডলার আরো বলেন, এফবিআইয়ের তদন্ত, কংগ্রেসের পদক্ষেপ ও সম্ভাব্য স্বাধীন অনুসন্ধানের বদৌলতে রাশিয়ার সঙ্গে ট্রাম্প প্রশাসনের গোপন সম্পর্কের বিষয়টি অবশ্যম্ভাবীভাবে প্রকাশ্যে চলে আসবে। এ গল্প থেকে প্রশাসনও বাদ যাবে না।

শিন্ডলার এই পূর্বাভাস দিলেন এমন সময়, যখন কয়েক দিন আগে এফবিআইয়ের প্রধান জেমস কোমি ঘোষণা দিয়েছেন, নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে ব্যুরো। এ ছাড়া রাশিয়ার সঙ্গে ট্রাম্পের কর্মকর্তাদের গোপন সম্পর্কের বিষয়টিও খতিয়ে দেখছে এফবিআই।

দুটি কংগ্রেসে কমিটি একই অভিযোগ তদন্ত করছে। ট্রাম্পের জামাতা জ্যারেড কুশনারকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে সিনেট কমিটি। এ ছাড়া ট্রাম্পের শীর্ষ সব কর্মকর্তাকেও অভিযোগের ভিত্তিতে জিজ্ঞাসাবাদ করছে তদন্তকারীরা।

তবে এও বলা হচ্ছে, এসব তদন্ত শেষ পর্যন্ত কোনো ফল বয়ে নাও আনতে পারে।

ওয়াটারগেট কেলেঙ্কারির খবর প্রকাশকারী অন্যতম সাংবাদিক কার্ল বার্নস্টেইন দাবি করেছেন, ট্রাম্পের প্রচারশিবির ও রাশিয়ার সঙ্গে গোপন যোগাযোগের তথ্য ঢেকে রাখার তৎপরতায় প্রেসিডেন্ট নিজেও জড়িত।

এসবের পরিপ্রেক্ষিতে শিন্ডলার পূর্বাভাস দিয়েছেন, এই তদন্তের হাত ধরেই ট্রাম্পের পতন ঘটতে পারে।

You Might Also Like