ইজিয়ান সাগরে ডুবে ১১ জনের মৃত্যু

ইজিয়ান সাগরের তুরস্ক উপকূলে শরণার্থীদের একটি নৌকা ডুবে শিশুসহ ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

তুর্কি কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে আলজাজিরা অনলাইনের এক খবরের শনিবার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে তুরস্কের উপকূলরক্ষীরা জানিয়েছে, ২০ জন বিদেশি শরণার্থীবাহী নোকটি গ্রিসের দ্বীপের উদ্দেশে যাওয়ার সময় আয়দিন প্রদেশের কুসাদাসি জেলায় উপকূলে ডুবে যায়। নৌকার নয়জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

দোগান নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে, পাঁচ শিশুসহ মারা যাওয়া ১১ জন সিরিয়ার নাগরিক।

ডিএইচএ নেটওয়ার্কে প্রচারিত ভিডিওতে দেখা যায়, সাগর থেকে উদ্ধারকৃত মরদেহগুলোর মধ্যে ছয়টি লাশ একটি অ্যাম্বুলেন্সের পাশে রাখা হয়েছে।

মানব পাচারকারী সন্দেহে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে তুর্কি পুলিশ। দুর্ঘটনাকবলিত নৌকায় শরণার্থীদের সঙ্গে তারা দুজনও ছিলেন।

তুরস্কের উপকূলরক্ষীদের দেওয়া তথ্যানুযায়ী, গত বছর গ্রিসের সঙ্গে তুরস্কের শরণার্থী চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার পর দুই দেশের যাতায়াতের সময় শরণার্থী ধরা পড়ার পরিমাণ ৮৫ শতাংশ কমে গেছে।

গত বছরের ওই চুক্তির পর ১৬ হাজার ৬২৭ জন শরণার্থী সাগর পাড়ি দিয়েছে। চুক্তির আগের বছর এ সংখ্যা ছিল ১ লাখ ১১ হাজার ১৩৩ জন। ২০১৫ সালের এপ্রিল মাস থেকে ২০১৬ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত তুরস্ক থেকে গ্রিসে পৌঁছানোর চেষ্টার সময় সাগরে ডুবে মারা গেছে ৪২৭ জন।

You Might Also Like