জম্মুতে রোহিঙ্গা-বাংলাদেশি শরণার্থীদের বহিষ্কারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল

জম্মুতে বসবাসকারী রোহিঙ্গা-বাংলাদেশি শরণার্থীদের বহিষ্কারের দাবিতে বৃহস্পতিবার সেখানে বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে। ‘জম্মু বাঁচাও’ অভিযানের কর্মসূচি হিসেবে বিক্ষোভকারীরা ‘বাংলাদেশিদের ভাগাও, জম্মু নিরাপদ করো’ প্ল্যাকার্ড বহন করে।

তারা অবৈধভাবে আসা রোহিঙ্গা এবং বাংলাদেশি মুসলিম শরণার্থীদের জম্মু থেকে দ্রুত বহিষ্কার করে তাদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর জন্য রাজ্যে ক্ষমতাসীন পিডিপি-বিজেপি জোট সরকারের উদ্দেশ্যে দাবি জানিয়েছে।

জম্মু-কাশ্মিরে ক্ষমতাসীন দলের শরিক বিজেপি বিদেশি মুসলিম শরণার্থীদের রাজ্য এবং দেশের জন্য বিপদ বলে সংশ্লিষ্ট সকলকে সতর্ক করেছে। জম্মুতে হিন্দু জনসংখ্যা কম করার ষড়যন্ত্র চলছে বলেও দলটির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

বিজেপি’র অভিযোগ, ‘১৭ বছর আগে ডা. ফারুক আবদুল্লাহ সরকারের সময় ওই শরণার্থীদের জম্মুতে বসানো হয়েছিল। বর্তমানে তাদের পরিবারের সংখ্যা বেড়ে ৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।’
অন্যদিকে, জম্মু-কাশ্মির প্যান্থার্স পার্টির পক্ষ থেকে শরণার্থীদের রাজ্য এবং দেশের নিরাপত্তার জন্য হুমকি বলে উল্লেখ করে একে টাইম বোমার সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে। তাদের মতে, যে দেশ থেকে এসব অবৈধ শরণার্থীরা জম্মুতে এসেছে ওই দেশও তাদেরকে নিজেদের নিরাপত্তার জন্য হুমকি মনে করেছে। সংগঠনটি বলছে তারা জাতীয় নিরাপত্তার সঙ্গে কোনোরকম আপশ করবে না।

এর আগে জম্মুর বিভিন্নস্থানে রোহিঙ্গা এবং বাংলাদেশিদের টার্গেট করে জম্মু ত্যাগ করার কথা বলা হয়। পোস্টারে ডোগরা ঐতিহ্য, সংস্কৃতি এবং পরিচিতি রক্ষার জন্য জম্মুবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ডাক দেয়া হয়।

জম্মু-কাশ্মির ন্যাশনাল প্যান্থার্স পার্টি’র চেয়ারম্যান হর্ষদেব সিং বলেন, ‘রাজ্যের কোনো অংশে রোহিঙ্গাদের বসতি স্থাপনের জন্য কোনো আইনি সুযোগ নেই। সংবিধানের ৩৭০ ধারা অনুযায়ী অন্য কোনো স্থান থেকে কেউ এসে বসতি স্থাপন করা বেআইনি। যদি রাজ্য সরকার তাদের বহিষ্কার না করে, তাহলে আমরা ওই কাজ করব।’

গত সোমবারও জম্মুতে ‘ডোগরা ফ্রন্ট ও শিবসেনা’ সংগঠনের পক্ষ থেকে মিয়ানমারের রোহিঙ্গা-বাংলাদেশি শরণার্থী ইস্যুতে প্রতিবাদ কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়।

You Might Also Like