উত্তর প্রদেশে মুসলিম প্রার্থীদের ভরাডুবি

ভারতের উত্তর প্রদেশের মোট জনসংখ্যার ১৯ শতাংশ মুসলিম।

অন্যান্য রাজ্যের তুলনায় মুসলিম ধর্মাবলম্বী বেশি হওয়ায় এ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে মুসলিম প্রার্থীদের প্রাধান্য থাকে। কিন্তু এবার বিধানসভায় মাত্র ২৪ জন এমএলএ প্রার্থী জয়ী হয়েছেন, যেখানে আগেরবার ছিল ৬৯ জন।

উত্তর প্রদেশের বিধানসভায় ৪০৩টি আসন রয়েছে। এবারের নির্বাচনে বিজেপি ৩২৪টি আসন নিয়ে নিরঙ্কুশ জয়ে সরকার গঠনের পথে রয়েছে। বিজেপি কোনো আসনে মুসলিম প্রার্থী দেয়নি। তারপরও দলটি অকল্পনীয় জয় নিশ্চিত করেছে।

উত্তর প্রদেশে পশ্চিমাঞ্চল, রোহিলখন্ড, তেরাই এবং পূর্বাঞ্চলে মুসলিমরা সংখ্যাগরিষ্ঠ। এসব অঞ্চল কংগ্রেস, সমাজবাদী পার্টি ও বহুজন সমাজপার্টির ভোটব্যাংক হিসেবে পরিচিত। ফলে প্রার্থী নির্বাচনে ঘাম ঝরাতে হয় এসব দলকে। কিন্তু বিজেপি কোনো মুসলিম প্রার্থী না দিয়েই কৌশলগত সুবিধা নিয়ে বিজয়ী হয়েছে।

মুসলিম ভোট সমাজবাদী পার্টি, বহুজন সমাজ পার্টির মধ্যে ভাগাভাগি হয়ে যাওয়ায় বিজেপির প্রার্থীরা সহজেই জয় ঘরে তুলতে পেরেছেন।

উত্তর প্রদেশে ধর্মভিত্তিক রাজনীতি বিশেষ গুরুত্ব পায়। বিজেপি ও জনপ্রিয় অন্য দলগুলো সুযোগ পেলে ধর্মকে রাজনীতির হাতিয়ার হিসেবে একে অপরকে ঘায়েল করার চেষ্টা করে। কিন্তু এবার এই ইস্যুতে শেষ পর্যন্ত লাভবান হয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিজেপি।

অখিলেশ যাদব ও তার বাবা মুলায়ম সিং যাদবের গৃহযুদ্ধ ভোটের মাঠে বিরূপ প্রভাব ফেলেছে। তা ছাড়া সমাজবাদী পার্টির সঙ্গে কংগ্রেসের জোট গঠনও মুসলিম ভোটারদের একটি অংশ ভালো চোখে দেখেনি। তারা বিজেপিকে ভোট দিয়েছে।

You Might Also Like