ইরাক-সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার: সন্ত্রাসীদের নিন্দা করল ইরান

ইরাক ও সিরিয়ায় উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো যে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছে তার নিন্দা জানিয়েছে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান। একইসঙ্গে সিরিয়ার বিষয়টি রাজনীতিকীকরণ না করার জন্য রাসায়নিক অস্ত্র নিষিদ্ধকরণ সংস্থা বা ওপিসিডাব্লিউ’র প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

হেগে সংস্থার ৮৪তম নির্বাহী পরিষদের বৈঠকে গতকাল (বুধবার) এ আহ্বান জানান ইরানের রাষ্ট্রদূত আলী রেজা জাহাঙ্গিরি। এ সময় তিনি ইরানের জনগণের বিরুদ্ধে ইরাকের সাবেক স্বৈরশাসক সাদ্দাম বাহিনীর রাসায়নিক হামলার কথা উল্লেখ করে বলেন, বিশ্বকে রাসায়নিক অস্ত্রমুক্ত করার জন্য সবার প্রচেষ্টা অনেক বেশি জোরদার করা উচিত।

ওপিসিডাব্লিউ’র ২০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ইরানের ওপর সাদ্দাম সরকার রাসায়নিক হামলা চালিয়েছিল। ইরানের আজারবাইজান প্রদেশের সারদাস্ত শহরের ওপর এ হামলা হয় এবং জাপানের হিরোশিমা ও নাগাসাকি শহরের পর এ শহরটি গণবিধ্বংসী মারণাস্ত্রের হামলার শিকার হয়।

সিরিয়ার ঘটনাবলীর কথা তুলে ধরে জাহাঙ্গিরি ওপিসিডাব্লিউ’র সঙ্গে রাসায়নিক অস্ত্র ইস্যুতে দামেস্ক সরকারের সহযোগিতার প্রশংসা করেন। যুদ্ধবিধ্বস্ত এ দেশটির সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য তিনি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান।

ইরাক ও সিরিয়ায় বিদেশি মদদপুষ্ট সন্ত্রাসীরা কয়েক দফায় বেসামরিক নাগরিক ও সরকারি বাহিনীর ওপর রাসায়নিক হামলা চালিয়েছে। তবে বার বার তারা সরকারি বাহিনীকে দোষারোপ করেছে এবং মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা দেশগুলো সন্ত্রাসীদের দাবিকে সমর্থন দিয়ে সিরিয়ার সরকারকে দোষী সাব্যস্ত করার চেষ্টা করে এসেছে।

You Might Also Like