চীন সীমান্তে গেরিলাদের সঙ্গে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সংঘর্ষ: নিহত ৩০

মিয়ানমারের চীন সীমান্তের কাছে জাতিগত গেরিলাদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর সংঘর্ষে অন্তত ৩০ জন নিহত হয়েছে। দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় কোকাং অঞ্চলের লাউক্কাই শহরের কাছে সংঘটিত এ সংঘর্ষে কামান ও হালকা অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে।

গেরিলা যোদ্ধারা পুলিশের পোশাক পরে নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর হঠাৎ করে আক্রমণ চালালে এ সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে পাঁচ পুলিশ, পাঁচ বেসামরিক নাগরিক ও ২০ গেরিলা নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

মিয়ানমারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অং সান সু চি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, “এমএনডিএএ সশস্ত্র গোষ্ঠীর হামলায় একজন প্রাইমারি স্কুল শিক্ষকসহ বহু বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছে বলে আমরা প্রাথমিক খবরে জানতে পেরেছি।”

কোকাং অঞ্চলের স্বাধীনতার জন্য দীর্ঘদিন ধরে সশস্ত্র সংগ্রাম করছে ‘মিয়ানমার ন্যাশনালিটিস ডেমোক্র্যাটিক অ্যালায়েন্স আর্মি’ বা এমএনডিএএ। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সোমবার ভোররাতে গেরিলারা পুলিশ ও সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে হামলা শুরু করে। পরে গেরিলাদের আলাদা একটি গোষ্ঠী লাউক্কাই শহরের অন্যান্য এলাকায়ও নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর হামলা চালায়।

সোমবার বিকেলে শহরটির একাংশে আগুন জ্বলতে এবং বেসামরিক লোকজনকে নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে ছুটে পালাতে দেখেছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

এমএনডিএএ তাদের ফেসবুক পাতায় এ সংঘর্ষের খবর নিশ্চিত করে বলেছে, আত্মরক্ষার স্বার্থে এ হামলা চালিয়েছে তারা। গেরিলা গোষ্ঠীটি বলেছে, গত ডিসেম্বর থেকে সেখানে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী যে অভিযান চালাচ্ছে তার প্রতিশোধ হিসেবে সোমবারের হামলা চালানো হয়েছে।

You Might Also Like