মাগুরায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২৫

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার দীঘা ইউনিয়নের পাল্লা গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের দুই নেতার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে মহিলাসহ ২৫ জন আহত হয়েছেন।

বুধবার রাতে এ সংঘর্ষে প্রতিপক্ষের সাতটি বাড়ির ১০টি ঘর ভাঙচুর করা হয়েছে। পুলিশ পাঁচজনকে আটক করেছে। এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ ও কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, মঙ্গলবার সকালে স্কুলে আসার পথে পাল্লা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সৈয়দ শওকত আলীকে মারধর করে স্থানীয় কয়েকজন যুবক। এ ঘটনার পর ওই গ্রামে উত্তেজনা চলছিল। রাতে পাল্লা গ্রামের মোল্যা পাড়ার বাসিন্দা রাতুল ও হিরুর মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। এ ঘটনায় স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতা মো. মোস্তাফিজুর রহমান ও সৈয়দ সাদেক আলীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষ চলার পর পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এতে নারীসহ উভয়পক্ষের ২৫ জন আহত হন।

পরে পুলিশ গ্রাম থেকে সংঘর্ষে জড়িত সন্দেহে হাফিজার মোল্যা, ঝন্টু মোল্যা, জয়দার মোল্যা, ইদ্রিস মোল্যা ও শুকুর মোল্যাকে আটক করে।

মহম্মপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. তরিকুল ইসলাম ইসলাম বলেন, এখন পরিস্থিতি শান্ত। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

You Might Also Like