নিবন্ধন বাতিলের ঝুঁকি বিএনপি নেবে না

৫ জানুয়ারির নির্বাচনের মতো আগামী জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি অংশ না নিয়ে, নিবন্ধন বাতিল হওয়ার মতো কোনো ঝুঁকি নেবে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার সকালে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে মহিলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

আগামীকাল শনিবার সকালে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়নে সংগঠনটির সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সময় আসলে কারো জন্য অপেক্ষা করে না। সংবিধানও কারো জন্য অপেক্ষা করবে না। সময় যেমন অপেক্ষা করবে না, সংবিধানও তেমন অপেক্ষা করবে না। আর নির্বাচনও কারো জন্য অপেক্ষা করবে না।

৫ জানুয়ারি নির্বাচনের মতো এবারও যদি বিএনপি নির্বাচনে না আসে, তাহলে নিবন্ধন বাতিল হয়ে যাবে; এমন ঝুঁকির কারণে বিএনপি নির্বাচনে না আসার সিদ্ধান্ত নেবে- এই কাজটি মনে হয় তারা করবে না।

নির্বাচনকালীন সরকারে বিএনপির অংশগ্রহণের সুযোগ আছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সংবিধানে সহায়ক সরকার বলে কোনো বিধান নেই। সংবিধানে অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের বিধান আছে। পৃথিবীর উন্নত গণতান্ত্রিক দেশে নির্বাচনকালীন সরকার থাকে বাংলাদেশেও তখন সে সরকার থাকবে। সংবিধান অনুসারে বিএনপির অন্তর্বর্তীকালীন সরকারে অংশগ্রহণের সুযোগ নেই।

সংবাদ সম্মেলনে মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আশরাফুন নেসা মোশাররফ লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। লিখিত বক্তব্যে তিনি আগামীকালের সম্মেলনের মধ্য দিয়ে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নারী অগ্রযাত্রার আরেকটি মাইলফলক রচিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, সমাজকল্যাণ সম্পাদক ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা, কার্যনির্বাহী সদস্য এস এম কামাল, মহিলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক পিনু খান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদা বেগম প্রমুখ।

You Might Also Like