মানবাধিকারের বিরাজনীতিকরণ জরুরি হয়ে পড়েছে: ইরান

ইরানের উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইয়্যেদ আব্বাস আরাকচি বলেছেন, মানবাধিকারের মতো একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়কে রাজনৈতিক প্রভাব থেকে মুক্ত করা জরুরি হয়ে পড়েছে। তিনি মঙ্গলবার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের সভায় দেয়া বক্তব্যে এ আহ্বান জানিয়েছেন।

কিছু পশ্চিমা দেশের পক্ষ থেকে মানবাধিকারকে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহারের কথা উল্লেখ করার পাশাপাশি জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক কার্যক্রমেরও সমালোচনা করেন আরাকচি। তিনি বলেন, গোটা বিশ্বের মানবাধিকার পরিস্থিতির উন্নয়নের জন্য জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের কাজ করা উচিত। কিন্তু এই পরিষদ আজ কিছু দেশের বিরুদ্ধে অভিযোগ উত্থাপন ও মতবিরোধ ছড়িয়ে দেয়ার একটি প্ল্যাটফর্মে পরিণত হয়েছে।

ইরানের উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার দেশের হাজার হাজার বছরের সভ্যতা ও সমৃদ্ধ সংস্কৃতির কথা উল্লেখ করে বলেন, মানবাধিকার পরিস্থিতির উন্নয়নের দিকে ইরান সরকার সব সময় মনযোগী ছিল এবং এ লক্ষ্যে বহু কাজ করেছে তেহরান।

সম্প্রতি জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের পক্ষ থেকে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, ইরানে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে। আব্বাস আরাকচি দৃশ্যত সে প্রতিবেদনের সমালোচনা করতে গিয়ে এসব কথা বলেন।

ইরানের উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইয়েমেনের বেসামরিক নাগরিক ও স্থাপনার ওপর প্রতিদিন পাশবিক বিমান হামলা চালানো হলেও সে ব্যাপারে আন্তর্জাতিক সমাজ নীরব রয়েছে। এ ছাড়া, ফিলিস্তিনি জনগণের ওপর ইহুদিবাদী ইসরাইল পদ্ধতিগতভাবে দমন অভিযান চালালেও আন্তর্জাতিক সমাজের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিবাদ জানানো হচ্ছে না।#

পার্সটুডে

You Might Also Like