ঢাকায় বামপন্থিদের হরতালে পুলিশের জলকামান ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ

গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে রাজধানীতে সিপিবি ও বাসদসহ বামদলগুলোর ডাকে আজ (মঙ্গলবার) ভোর ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত আধাবেলা হরতাল পালিত হয়েছে।

হরতালের শুরুতে সকালে শাহবাগে রাস্তা বন্ধ করে অবস্থান নেন প্রগতিশীল ছাত্রজোটের নেতাকর্মীরা। এ সময় হরতাল সমর্থনকারীরা টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে শাহবাগ মোড়ে সমাবেশ করতে থাকে তারা। ফলে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হরতালকারীদের অবস্থান লক্ষ্য করে জলকামান ব্যবহার ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পুলিশ। এতে তারা শাহবাগ মোড় থেকে টিএসসির দিকে সরে যায়। এ সময় পুলিশ শাহবাগ থেকে আটক সাত জনকে আটক করেছে।

এছাড়া সিপিবি-বাসদ ও গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার কর্মীরা সকাল থেকে পল্টন, প্রেস ক্লাব, গুলিস্তান, দৈনিক বাংলা মোড়সহ বিভিন্ন এলাকায় খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে গ‌্যাসের দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানিয়েছেন।
বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন গত বৃহস্পতিবার গ‌্যাসের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেয়ার পর শুক্রবার সিপিবি-বাসদ ও গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা আলাদাভাবে এই হরতালের ঘোষণা দেয়। তাতে সমর্থন জানায় বিএনপিসহ আরও কয়েকটি দল।

এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের পক্ষ থেকে দুই ধাপে মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। আগামী ১ মার্চ থেকে প্রথম দফা এবং ১ জুন থেকে দ্বিতীয় দফায় মূল্যবৃদ্ধি কার্যকর হবে। মূল্যবৃদ্ধির ফলে আগামী ১ মার্চ থেকে আবাসিক খাতে দুই চুলার জন্য ৮০০ এবং এক চুলার জন্য ৭৫০ টাকা গুনতে হবে গ্রাহকদের। দ্বিতীয় ধাপে ১ জুন থেকে দুই চুলার জন্য ৯৫০ এবং এক চুলার জন্য ৯০০ টাকা দিতে হবে।

এদিকে, গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে একটি রিট দায়ের করা হয়েছে। কনজুমার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) এর পক্ষে সোমবার আইনজীবী এডভোকেট মোহাম্মদ সাইফুল আলম হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রিট দায়ের করেন।

রিট আবেদনে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি সংক্রান্ত বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের জারি করা বিজ্ঞপ্তির কার্যকারিতা স্থগিত চাওয়া হয়েছে।

You Might Also Like