ওলাঁদকেও চটালেন ট্রাম্প

ফ্রান্সের অভিবাসন নীতি ও দেশটির নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড টাম্প যে বক্তব্য দিয়েছেন সে ব্যাপারে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ। তিনি বলেছেন, “একটি বন্ধুপ্রতীম দেশের ব্যাপারে এরকম সন্দেহ ও অবিশ্বাস নিয়ে কথা বলা উচিত নয়।”

শনিবার ফ্রান্সের কৃষি বিষয়ক এক অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তব্যে ওলাঁদ আরো বলেন, “আমি কখনো কোনো বন্ধু দেশের ব্যাপারে এরকম করব না এবং মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছ থেকেও আশা করব তিনি ফ্রান্সের ব্যাপারে এরকম করবেন না।”

ডোনাল্ড টাম্প অভিবাসীদের ব্যাপারে নিজের বিতর্কিত নীতির পক্ষে কথা বলতে গিয়ে সম্প্রতি ফ্রান্স, সুইডেন ও জার্মানির এ সংক্রান্ত নীতির সমালোচনা করেন। তিনি শুক্রবার এক ভাষণে বলেন, “সুইডেন, জার্মানি ও ফ্রান্সের গৃহিত নীতির পরিণামে দেখুন নিস ও প্যারিসে কি ঘটেছে।”
তিনি প্যারিসের নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে নিজের কথিত এক বন্ধুর বক্তব্য উদ্ধৃত করে বলেন, “আমার বন্ধু প্রতি বছর প্যারিস সফর করত। কিন্তু সম্প্রতি সে আমাকে বলেছে, ৪/৫ বছর ধরে সে প্যারিসে যায় না কারণ প্যারিস এখন আর সেই আগের প্যারিস নেই।”

ট্রাম্পের এ বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে ফরাসি প্রেসিডেন্ট বলেন, ট্রাম্প আমাকে টেলিফোনে আলাপ করার সময় জানিয়েছেন, তিনি ফ্রান্স ও প্যারিসের জন্য পাগল। ওলাঁদ বলেন, প্যারিস সম্পর্কে যদি ট্রাম্পের আসল মনোবৃত্তি এটা হয় তাহলে তিনি যেন তার বক্তব্যে সেটাই প্রকাশ করেন; উল্টোটা নয়।

ফরাসি প্রেসিডেন্ট পরিসংখ্যান তুলে ধরে বলেন, বিগত কয়েক মাসে তার দেশে মার্কিন পর্যটকদের আনাগোনা বেড়ে গেছে। তিনি আমেরিকায় আগ্নেয়াস্ত্রের সহজলভ্যতার প্রতি ইঙ্গি করে বলেন, “আমি কারো সঙ্গে তুলনা করতে চাই না। কিন্তু বলতে চাই এদেশে আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহার নেই এবং সাধারণ মানুষকে গুলি করার জন্য কেউ অস্ত্র কেনে না।”

You Might Also Like