ছুরিকাঘাতে নিউ ইয়র্কে রিয়েলটর জাকির খান নিহত

নিউ ইয়র্কের ব্রঙ্কসে বাড়ির মালিকের ছুরিকাঘাতে কমিউনিটির পরিচিতমুখ ব্যবসায়ী জাকির খান নিহত হয়েছেন। ভাড়া নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

নিউ ইয়র্ক পুলিশ সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, স্থানীয় সময় বুধবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে থ্রগস নেক এলাকার লগান এভিনিউয়ে বাসার সামনেই ৪৪ বছর বয়সী জাকির খানকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করা হয়। পরে পুলিশ উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক জাকির খানকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিউ ইয়র্কের গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, এই হত্যার জন্য প্রাথমিকভাবে তার বাড়ির মালিককে সন্দেহ করা হচ্ছে। ৫১ বছর বয়সী ওই বাড়ির মালিককে আটক করে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

জাকির খানের ঘনিষ্ঠজনরা জানিয়েছেন, মিশরীয় ওই মালিকের বাসায় জাকির দীর্ঘদিন ধরে ভাড়া ছিলেন। সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জের সন্তান জাকির খান ব্রঙ্কসের পার্কচেস্টার রিয়েল এস্টেট কোম্পানি নামে একটি ব্রোকার প্রতিষ্ঠান চালাতেন। ১৩ বছর বয়েসী এক মেয়ে এবং দশ ও সাত বছর বয়েসী দুই ছেলেকে রেখে গেছেন তিনি। নিহত জাকির খান একজন রেজিস্টার্ড ডেমোক্রেট সমর্থক ছিলেন।

জাকিরের খুন হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে প্রবাসী বাংলাদেশিদের অনেকেই হাসপাতালে জড়ো হন। ঘাতকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন তারা।

এর আগে গত বছরের আগস্টে ধর্মীয় বিদ্বেষের শিকার হয়ে নিউইয়র্কে এক বাংলাদেশি ইমাম, এক নারীসহ তিনজন নিহত হন।

৩১ আগস্ট নাজমা খানম ঝর্না (৬০) নামে এক বাংলাদেশি নারী কুইন্সের জ‌্যামাইকা হিলস এলাকায় বাড়ির সামনেই দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে প্রাণ হারান।

একই মাসের ১৩ তারিখে কুইন্সের ওজন পার্কে গুলি চালিয়ে হত্যা করা হয় বাংলাদেশি ইমাম মাওলানা আলাউদ্দিন আকঞ্জি (৫৫) এবং তার সহযোগী তারা মিয়াকে (৬৪)। স্থানীয়রা এসবকে বর্ণ বিদ্বেষী হত্যাকাণ্ড হিসেবে চিহ্নিত করেছে।

You Might Also Like