সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক এবং সাইমুম সরওয়ার কমলকে কক্সবাজারবাসীর সংবর্ধনা
নিউ ইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসের নান্দুস পার্টি হলে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ‘কক্সবাজার এসোসিয়েশন অব নর্থ আমেরিকা’।
আইপিইউ এবং জাতিসংঘের যৌথ উদ্যোগে সম্প্রতি নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত সামুদ্রিক সম্পদ রক্ষা তথা পরিবেশ সুরক্ষায় করণীয় সম্পর্কে দু’দিনব্যাপী এক পার্লামেন্টারি হিয়ারিং-এ কক্সবাজার অঞ্চলের সমস্যা আর সম্ভাবনা যথাযথভাবে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে উপস্থাপনের জন্যে এ সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে বলে জানায় সংগঠনটি।
সংগঠনের সভাপতি এহতেশামুল হক শিমুলের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন আরটিভি’র যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি আশরাফুকুল হাসান বুলবুল।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই দুই এমপি’কে কক্সবাজারবাসীর পক্ষ থেকে ক্রেস্ট দেন এসোসিয়েশনের উপদেষ্টা নূরুল আজিম এবং সেক্রেটারি গিয়াসউদ্দিন।
এ সময় অতিথি হিসেবে মঞ্চে ছিলেন চট্টগ্রাম সমিতির সাবেক সভাপতি কাজী আজম, সেক্রেটারি আবু তাহের, যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি আব্দুল কাদের মিয়া এবং কক্সবাজার অ্যাসোসিয়েশনের উপদেষ্টা মুজিবুর রহমান, বোর্ড অব ট্রাষ্টি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, নিউইয়র্ক স্টেট যুবলীগের আহ্বায়ক তারেকুল হায়দার।
সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে সাইমুম সরওয়ার কমল বলেন, “কক্সবাজারের ঐতিহ্য সমুন্নত রাখার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশকে নতুন করে বিশ্বের দরবারে উপস্থাপনের এ সুযোগ দিয়েছিলেন সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার বিচক্ষণ নেতৃত্বে গোটা বাংলাদেশ আজ সমৃদ্ধির পথে ধাবিত হচ্ছে-এমন মন্কব্যও শুনেছি জাতিসংঘে বিভিন্ন দেশ থেকে ওই শুনানীতে অংশগ্রহণকারীদের মুখ থেকে।”
আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেন, “কক্সবাজারের উন্নয়নের অর্থ হচ্ছে বাংলাদেশের উন্নয়ন ত্বরান্বিত করা। সেভাবেই আমরা কাজ করছি সকল ফোরামে। জাতিসংঘে এসে আমরা কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের বিস্তারিত বর্ণনা উপস্থাপনে সক্ষম হয়েছি। বিশ্বে অন্যতম বৃহত্তম এই সমুদ্র সৈকতের সৌন্দর্য অটুট রাখতে আন্তর্জাতিক মহলের সহায়তা চেয়েছি।”
সংসদ সদস্য সাইমুন সরোয়ার কমল বলেন, “বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যতদিন বাংলাদেশ থাকবে, ততদিন বিশ্বের কোন দেশ বাংলাদেশকে খাটো করে দেখার সুযোগ পাবেনা।”
উক্ত সভায় উপস্থিত ছিলেন জালালাবাদ সোসাইটির প্রেসিডেন্ট বদরুল খান,মুক্তিযোদ্ধা শরাফ সরকার, চট্টগ্রাম সমিতির সাবেক সভাপতি মোঃ হানিফ, চট্টগ্রাম সমিতির সাবেক নির্বচন কমিশনার রেজা, চট্টগ্রাম সমিতির ট্রাষ্টি বোর্ডের কো-চেয়ারম্যান সামসুল আলম, কমিউিনিটি এক্টিভিষ্ট এনাম চৌধুরী, সাবেক সাংস্কৃতিক সম্পাদক লিটন চৌধুরী, আশ্রাফ আলী লিটন, চট্টগ্রাম সমিতির আসন্ন নির্বচনের সভাপতি প্রার্থী আব্দুল হাই জিয়া, নির্বাচন কমিশনার মাকসুদুল হক চৌধুরী, চট্টগ্রাম সমিতির আসন্ন নির্বাচনের সভাপতি প্রার্থী মোঃ জাহাঙ্গির আলম, মোক্তাদির বিল্লাহ, উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান, উপদেষ্টাএম. নাদের প্রমুখ।
প্রেস বিজ্ঞপ্তি

You Might Also Like