এগারো নম্বরে নেমে ১৫০ নট আউট!

এগারো নম্বর ব্যাটসম্যান নাম শুনলে আপনার মনের পর্দায় কী ভেসে ওঠে? ব্যাটিংয়ে অসমর্থ এক ব্যাটসম্যান যিনি বোলারকে উইকেট উপহার দিয়ে ফিরছেন? এমনটা ভেবে থাকলে আপনাকে ভুল প্রমাণ করবে ফ্রেডি ওয়াকারের ব্যাটিং। নিউজিল্যান্ডে রিপ্রেজেন্টেটিভ ক্রিকেটে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে নেমে তিনি খেলেছেন অপরাজিত ১৫০ রানের দুর্দান্ত ইনিংস!

রোববার হ্যামিল্টনের সেডন পার্কে চ্যাপেল-হ্যাডলি সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছিল অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড। সেডন পার্কের মাত্র পাঁচ কিলোমিটার পূর্বে গ্যালওয়ে পার্কে নর্দান ডিস্ট্রিক্ট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন ম্যাচে হ্যামিল্টনের হয়ে বে অব প্লেন্টির বিপক্ষে ১৫০ রানের অবিশ্বাস্য ইনিংসটি খেলেছেন ওয়াকার। ইনিংসটি খেলার পথে শেষ উইকেটে তিনি অ্যানিশ দেসাইয়ের সঙ্গে গড়েন অবিচ্ছিন্ন ২২০ রানের জুটি।

প্রথম ইনিংসে একটা সময় হ্যামিল্টনের স্কোর ছিল ৬ উইকেটে ৯৩। ওয়াকার এগারো নম্বর ব্যাটসম্যান হিসেবে যখন তিনে নামা দেসাইয়ের সঙ্গে যোগ দিলেন, দলের স্কোর ৯ উইকেটে ১৮৯। সেখান থেকে এই দুজনের ২২০ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে হ্যামিল্টন ইনিংস ঘোষণা করে ৯ উইকেটে ৪০৯ রানে!

ওয়াকারের ১২৫ বলে খেলা অপরাজিত ১৫০ রানের ইনিংসটি সাজানো ছিল ২৩টি চার ও একটি ছক্কায়। অথচ আগের ছয় ইনিংস মিলে তার রান ছিল মাত্র ৫৪, সর্বোচ্চ ২৫! ওয়াকারের সঙ্গী দেসাই ২৩১ বলে করেন অপরাজিত ১৬৫।

ওয়াকার-দেসাই শেষ উইকেট জুটির ২২০ রান নিউজিল্যান্ডের প্রতিযোগিতায় রেকর্ড কি না, সেটি অবশ্য জানা যায়নি। টেস্ট ক্রিকেটে শেষ উইকেট জুটির রেকর্ড ১৯৮ রানের, ২০১৪ সালে ট্রেন্ট ব্রিজে ভারতের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের জো রুট ও জেমস অ্যান্ডারসন গড়েছিলেন ওই জুটি।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে রেকর্ডটা আরো দূরের পথ, ১৯২৮-২৯ মৌসুমে শেফিল্ড শিল্ডে মেলবোর্নে ভিক্টোরিয়ার বিপক্ষে শেষ উইকেট জুটিতে ৩০৭ রান তুলেছিলেন নিউ সাউথ ওয়েলসের অধিনায়ক অ্যালান কিপ্যাক্স ও এগারো নম্বরে নামা হ্যাল হুকার। হুকার ৬২ করে ফিরলে ভাঙে রেকর্ড এ জুটি। কিপ্যাক্স অপরাজিত ছিলেন ২৬০ রানে। ৯ উইকেটে ১১৩ থেকে নিউ সাউথ ওয়েলস করেছিল ৩৭৬।

টেস্টে এগারো নম্বর ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংসও এক অস্ট্রেলিয়ানের দখলে। ২০১৩ অ্যাশেজে ট্রেন্ট ব্রিজে এগারো নম্বরে নেমে ৯৮ রান করেছিলেন অ্যাশটন আগার। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে এগারো নম্বরে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস পিটার স্মিথের ১৬৩ রান, ১৯৪৭ সালে এসেক্সের হয়ে ডার্বিশায়ারের বিপক্ষে।

You Might Also Like